balu বালু মহাল logo

মতলবের শাহপুরে অবৈধ বালু ব্যবসা; নষ্ট হচ্ছে পাকা সড়ক

মতলব প্রতিনিধি :  চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলার শাহপুরে নদী দখল করে বালু মহলের বালু ব্যবসায়ীরা অবৈধভাবে বালু ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। এতে নষ্ট হচ্ছে নদী, পরিবেশ ও মানুষ চলাচলের পাকা সড়ক।

সরোজমিনে জানা যায়, শাহপুর খানকা শরীফ সংলগ্ন এলাকায় প্রায় ৮/১০ জন বালু ব্যবসায়ী নদী দখল করে তাদের বালু ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। শাহপুর খানকা শরীফ হইতে শাহপুর মোড় পর্যন্ত প্রায় ১ কিলোমিটার রাস্তা মাত্র আড়াই বছর পূর্বে সরকারি বরাদ্ধের মাধ্যমে সংস্কার করা হয়। কিন্তু তারা সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বৈধ কাগজপত্র ছাড়া ও নিষিদ্ধ পাওয়ার টলি দিয়ে বালু ব্যবসা করে যাচ্ছে। প্রতিদিন পাওয়ার টলির মাধ্যমে কয়েকশ বার বালু বোঝাই করে আনা নেওয়া করা হয়।

এতে মানুষ চলাচলের রাস্তাটি দিন দিন অকেজো হয়ে পড়ছে। বালু ব্যবসায়ী হরিয়ন গ্রামের মৃত তবদিল হোসেনের ছেলে খোকন বেপারী, শাহপুর গ্রামের নুরুল ইসলাম তালুকদারের ছেলে আজাদ তালুকদার ও তার ভাই আনাম তালুকদার, একই গ্রামের হালিম, সোহাগ ও নাছির সহ আরও অনেকেই অবৈধ বালু ব্যবসা করে যাচ্ছে। এখানে রয়েছে একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, জৈনপুর পীর সাহেবদের খানকা শরীফ ও সাপ্তাহিক একটি ছাগলের হাট ও বসানো হয়। অনেক সময় এই সমস্ত বালু ব্যবসায়ীদের কারণে সকলেরই সমস্যা হচ্ছে। দক্ষিণা প্রবল বাতাসে বালু উড়ে তাদের ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। অনেকের চোখের ও সমস্যা হয়েছে।

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সফিকুর রহমান বলেন, আমাদের বিদ্যালয় ঘেষে বালু রেখেছে খোকন বেপারী আমি ও আমার শিক্ষকরা জরুরী প্রয়োজনে বিদ্যালয়ে আসলে উড়ন্ত বালুর জন্য কোন কাজ করতে পারছি না। শিক্ষার্থীরাও বিদ্যালয়ে আসলে বালুর জন্য স্কুলে বেশিক্ষণ থাকতে পাড়ে না।

গোপন সূত্রে জানা যায়, খোকন বেপারী চোরাই তৈলের ব্যবসার সাথে জড়িত। রাতের আধারে নদীর নৌযান থেকে চোরাই তৈল কম দামে ক্রয় করে বেশি দামে বিক্রি করে থাকেন।

এ ব্যাপারে খোকন বেপারী ও অন্যান্যরা বলেন, আমরা প্রশাসনকে ম্যানেজ করেই এ সমস্ত ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছি।

মতলব দক্ষিণ থানার অফিসার ইনচার্জ (ও.সি) মহিউদ্দিন মিয়া বলেন, এ সমস্ত অবৈধ গাড়ি পাওয়ার টলি ও বালু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে অচিরেই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

22 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন