gun dead guli killer

কুমিল্লায় যুবলীগ নেতাকে গুলি করতে এসে ধাওয়ায় অস্ত্র ফেলে পালালেন যুবক

কুমিল্লা ব্যুরো :
কুমিল্লায় মনির ফরাজী নামে এক যুবলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা করতে এসে জনতার ধাওয়ায় আগ্নেয়াস্ত্র ফেলে এক যুবক পালিয়ে গেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযুক্ত ওই যুবকের নাম সায়েম।

মঙ্গলবার রাতে জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার পিপুলিয়াবাজারে এ ঘটনা ঘটেছে। এ নিয়ে এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

খবর পেয়ে রাতেই পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ওই পিস্তল উদ্ধার করে। এ ঘটনায় বুধবার সকালে যুবলীগ নেতা মনির ফরাজী বাদী হয়ে সদর দক্ষিণ মডেল থানায় হত্যাচেষ্টার মামলা করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার চৌয়ারা এলাকার টুঙ্গিরপাড় গ্রামের আবুল হাসেমের ছেলে সায়েম। তিনি চট্টগ্রাম নগরীর একজন তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী। সম্প্রতি চৌয়ারা ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা মনির ফরাজীর সঙ্গে সায়েমের বিরোধ সৃষ্টি হয়।

মঙ্গলবার রাতে মনির পিপুলিয়াবাজারে আসলে আকস্মিকভাবে তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে পিস্তল তাক করে সায়েম। এ সময় মনির চিৎকার করলে বাজারে সমবেত লোকজন সায়েমকে ঘিরে ফেলে এবং ধাওয়া করে। এতে সে হাতের পিস্তল ফেলে পালিয়ে যায়।

খবর পেয়ে সদর দক্ষিণ মডেল থানার এসআই খাদেমুল বাহার সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থল থেকে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে ব্যবহৃত অবৈধ পিস্তলটি উদ্ধার করে।

স্থানীয়রা জানায়, সম্প্রতি সায়েম টুঙ্গিরপাড় নিজ বাড়িতে অবস্থান করে এলাকায় প্রভাব বিস্তার শুরু করে। তুচ্ছ ঘটনা কেন্দ্র করে প্রায়ই অস্ত্র প্রদর্শন করে সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়ায়।

ইতিপূর্বে সায়েম চৌয়ারা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক শামসুল হকের ওপরও হামলা চালায় বলে অভিযোগ রয়েছে।

এ বিষয়ে সদর দক্ষিণ মডেল থানার ওসি দেবাশী চৌধুরী জানান, সন্ত্রাসী সায়েমের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে, তাকে গ্রেফতারের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।

14 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন