chandpur report 2017

চাঁদপুর সদর ও হাইমচরে সাড়ে ৭ হাজার পরিবারকে শিক্ষামন্ত্রীর ঈদ উপহার

মোঃ সাদ্দাম হোসেন ॥ অতিমারি করোনার মহাদুর্যোগ এবং পবিত্র ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে চাঁদপুর-৩ নির্বাচনী এলাকা তথা চাঁদপুর সদর ও হাইমচর উপজেলার জনগণের পাশে দাঁড়িয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি। তিনি তাঁর নির্বাচনী এলাকা এ দু’ উপজেলার হতদরিদ্র এবং করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষদের পাশে সমব্যথী হয়ে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। এ দু’ উপজেলার সাড়ে ৭ হাজার পরিবারকে তিনি ঈদ উপহার প্রদান করেছেন। প্রত্যেককে চাউল, তেল, সেমাই, চিনি ও দুধ দেয়া হয়।

গতকাল ৬ মে বৃহস্পতিবার বিকেলে ভার্চুয়াল সভার মাধ্যমে এ ঈদ উপহার বিতরণ কার্যক্রম শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি উদ্বোধন করেন। শিক্ষামন্ত্রীর পক্ষে স্থানীয়ভাবে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ডাঃ জেআর ওয়াদুদ টিপু চাঁদপুর সদর ও হাইমচর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং চাঁদপুর পৌরসভার মেয়রের হাতে এ ঈদ উপহার তুলে দেন। এরপর প্রত্যেক ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডে জনপ্রতিনিধি এবং ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকের মাধ্যমে ওইসব ঈদ উপহার পৌঁছে দেয়া হয়।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি ভার্চুয়াল সভার মাধ্যমে এ ঈদ উপহার বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। সভায় যুক্ত হন জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, চাঁদপুর পৌরসভা, সদর উপজেলা ও হাইমচর উপজেলার জনপ্রতিনিধি, প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দ, কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। অনেকে যার যার অবস্থানে থেকে সভায় যুক্ত হয়েছেন আবার অনেকে শিক্ষামন্ত্রীর চাঁদপুর শহরস্থ বাসার হলরুমে একত্রিত হয়ে সভায় যুক্ত হন। এখান থেকেই ঈদ উপহার জনপ্রতিনিধি এবং নেতাদের হাতে তুলে দেয়া হয়।

শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, আওয়ামী লীগের রাজনীতিই হচ্ছে জনগণের পাশে থাকা, দুর্যোগে সমব্যথী হয়ে মানুষের সাথে থাকা। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ এবং জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাদেরকে এই শিক্ষাই দিয়েছেন। আমরা জননেত্রী শেখ হাসিনার কর্মী হতে পেরেছি বলেই জনগণের পাশে সবসময় আছি এবং থাকি। বর্তমানে যে অতিমারি করোনার মহাদুর্যোগ চলছে, এ অবস্থায় প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের সমন্বিত উদ্যোগে জনগণের পাশে থাকতে হবে। তাহলে আর কোনো সমস্যা হবে না। যে কোনো কাজ সমন্বিত উদ্যোগে সমন্বিতভাবে করা হলে সব কিছুতেই স্বচ্ছতা থাকে এবং সকলের কাছে গিয়ে পৌঁছে। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, রাজনীতির প্রধান লক্ষ্যই হচ্ছে জনগণের সেবা করা, দুর্যোগে জনগণের পাশে থাকা। এ আদর্শ আমরা যারা শেখ হাসিনার কর্মী তারা লালন করি বলেই এক বছরেরও অধিক সময় হতে চলা করোনার মহাদুর্যোগে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা জনগণের পাশে আছে।

তিনি চাঁদপুরের প্রশাসন এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর এ করোনার দুর্যোগে ভূমিকার প্রশংসা করেন।
জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ এবং পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ (বিপিএম-বার) তাঁদের বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রীর উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করে বলেন, আপনি (ডাঃ দীপু মনি) সত্যিই একজন মমতাময়ী। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আদর্শ এবং শিক্ষা আমরা আপনার মাঝে খুঁজে পাই। আপনার সাথে কথা বললে আমরা উদ্দীপনা পাই, সাহস পাই। আমরা সত্যিই গর্বিত আপনার সাথে কাজ করতে পেরে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ স্বপন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগদান করে আরো বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ইউসুফ গাজী, সহ-সভাপতি ডাঃ জেআর ওয়াদুদ টিপু, চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র অ্যাডঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নূরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী ও সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশা, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডঃ মজিবুর রহমান ভূঁইয়া, সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী বেপারী, জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহফুজুর রহমান টুটুল, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাসুদা নুর খান, জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইলিয়াছ, জেলা পরিষদ সদস্য আয়েশা রহমান লিলি, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জহির উদ্দিন মিজি প্রমুখ।

এছাড়া ভার্চুয়ালি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, মহিলা লীগ, ছাত্রলীগসহ দলের বিভিন্ন অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেৃতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

8 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন