পানি শোধন

শাহরাস্তি পৌরসভার ভূ-পৃষ্ঠস্থ্য পানি শোধনাগার ও উচ্চ জলাধারের উদ্বোধন

পৌরসভার প্রতিটি নাগরিকের সুবিধার কথা চিন্তা করে এটি নির্মিত হয়েছে
———— মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম

মোঃ কামরুজ্জামান সেন্টু :
জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর কর্তৃক নির্মিত শাহরাস্তি পৌরসভার ভূ-পৃষ্ঠস্থ্য পানি শোধনাগার ও উচ্চ জলাধারের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল রোববার (৩০ মে) বিকেলে এটির শুভ উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য, সাবেক সফল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও মুক্তিযুদ্ধের ১নং সেক্টর কমান্ডার মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম।

উদ্বোধনের পূর্বে তিনি উপস্থিত পৌরবাসির উদ্দেশ্যে টেলি কনফারেন্সে বলেন, আজকের দিনটি পৌরবাসির জন্য স্বরণীয় হয়ে থাকবে। এজন্য আমি পৌর মেয়র আলহাজ্ব আবদুল লতিফকে ধন্যবাদ জানাই। তিনি এ শোধনাগারটি বাস্তবায়নের লক্ষে ভূমি দান করেছেন।

তিনি আরো বলেন, আমরা জনগনের জন্য কাজ করে যাচ্ছি, পৌরসভার উন্নয়নে সব সময়ই আমার সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। পৌরসভার প্রতিটি নাগরিক যাতে করে এ সুবিধার আওতায় আসতে পারে সে চেষ্টা করা হবে।

পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব আবদুল লতিফের সভাপতিত্বে ও কাউন্সিলর তুষার চৌধুরী রাসেলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর চাঁদপুরের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু মুছা আল ফয়সাল, উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান কামরুন্নাহার কাজল, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল মজুমদার, মেহের ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান তোফায়েল আহম্মেদ ইরান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর মোহাম্মদ আদেল, আওয়ামী লীগ নেতা রেজাউল করিম মিন্টু, উপজেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. ইলিয়াছ মিন্টু, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক জেড এম আনোয়ার, ঠাকুর বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আখতার হোসেন পাটওয়ারী, মোজাম্মেল হক পাটওয়ারী, উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি আঃ মান্নান মোল্লা, পৌর আওয়ামী লীগ নেতা আঃ মান্নান ব্যাপারী, পৌর কাউন্সিলর মুকবুল আহম্মেদ, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইমদাদুল হক মিলন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্যে পৌর মেয়র আলহাজ্ব আবদুল লতিফ বলেন, আমি পৌরবাসির কথা চিন্তা করে এ সম্পত্তি দান করেছি। আমাদের অভিভাবক মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলামের আন্তরিক সহযোগিতার কারণে আমরা আজ বিশুদ্ধ পানি পাচ্ছি। এজন্য আমি স্থানীয় সংসদ সদস্য সহ আপনাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। অনুষ্ঠান শেষে ১০ কোটি ২৪ লক্ষ টাকার অধিক ব্যয়ে নির্মিত শোধনাগারটি পৌরসভার কাছে হস্তান্তর করেন জনস্বাস্থ্যের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু মুছা আল ফয়সাল।

37 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন