প্রিমিয়ার হাসপাতাল

চাঁদপুরে ডাঃ মোবারক হোসেনের প্রিমিয়ার টাওয়ারের দুটি অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিছিন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুর শহরের স্বনামধন্য চিকিৎসক ডাঃ মোবারক হোসেনের প্রিমিয়ার প্রাইভেট হাসপাতাল লিমিটেড ভবনের দুটি অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। ৫ জুন সকালে বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের কুমিল্লা ও চাঁদপুর অফিসের কর্মকর্তারা এ অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিছিন্ন করেন বলে জানা গেছে।

খবর নিয়ে জানা গেছে ডাক্তার মোবারক হোসেনের প্রিমিয়ার টাওয়ারের বিক্রির জন্য কয়েকটি রেডি ফ্ল্যাটে অগ্রিম গ্যাস সংযোগের লাইন টেনে রাখা হয়। গ্যাস বিহিন অগ্রিম টেনে রাখা সেই গ্যাসের লাইন টেনে রাখার কারনে সেগুলো অবৈধ হওয়ায় তা বিছিন্ন করেন বাখরাবাদ গ্যাস কর্তৃপক্ষ।

জানাযায়, গত কঢেকদিন ধরে চাঁদপুর শহরে অবৈধভাবে সংযোগ নিয়ে গ্যাস ব্যবহার ও বিল বকেয়ার কারণে বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড। বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের কুমিল্লা ও চাঁদপুর অফিস যৌথ অভিযান চালিয়ে অবৈধভাবে ব্যবহার করা আবাসিক গ্যাস সংযোগ ও বাণিজ্যিক গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছেন।
সেই অভিযানের প্রেক্ষিতে ৬ জুন শনিবার সকালে ডাক্তার মোবারক হোসেনের প্রিমিয়ার প্রাইভেট হাসপাতাল ভবনের (প্রিমিয়ার টাওয়ার) বিক্রির জন্য রেডি ফ্ল্যাটের দুটি অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিছিন্ন করা হয়।

চাঁদপুর বাখরাবাদ গ্যাস অফিস সূত্রে জানা যায়, কুমিল্লা, ফেনী, লাকসাম ও চাঁদপুর অফিসের কর্মকর্তারা যৌথ সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে চাঁদপুর শহরের বিভিন্নস্থানে কয়েক শতাধিক অবৈধ গ্যাস সংযোগ ব্যবহার করা অবস্থা থেকে বিচ্ছিন্ন করা হয়।

এ বিষয়ে প্রিমিয়ার হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ডাক্তার মোবারক হোসেনের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি বলেন, আমাদের কিছু রেডি ফ্লাটের জন্য অগ্রিম লাইন টানা হয়েছিল। তবে সেগুলোতে কোন গ্যাসের সংযোগ ছিলোনা। গ্যাস কোম্পানির লোক এসে বলছেন যে তাদের নিয়মে সেগুলো অবৈধ। তাদের দাবি, গ্যাস সংযোগ থাকুক বা না থাকুক এভাবে অগ্রিম লাইন টেনে রাখার কোনো নিয়ম নেই। তাই তারা আমার গ্যাসের লাইন বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছেন।

তিনি আরো বলেন এখন সরকারি নিয়মে যদি আমার সেটা অবৈধ হয় তাহলে তো আমাকে সেটা মানতেই হবে। আমি সরকারি নিয়ম মতোই তা বৈধ করে পুনরায় আমার ভবনে গ্যাস সংযোগ চালু করবো।

শেয়ার করুন