আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠা

চাঁদপুরে ব্যাপক কর্মসূচীতে আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুরে যথাযথ মর্যাদায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের গৌরবের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হয়েছে। আজ ২৩ জুন বুধবার চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়।

সকাল সাড়ে ৭ টায় দলীয় কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে মাল্যদান এবং সকাল ৮ টায় জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়।

এরপর সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব নাছির উদ্দীন আহমেদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আবু নঈম পাটওয়ারী দুলালের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন,সহ-সভাপতি মঞ্জুর আহমেদ মঞ্জু,যুগ্ম সম্পাদক আহসান উল্লাহ্ আখন্দ, অ্যাড.জহিরুল ইসলাম,আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. রুহুল আমিন সরকার,শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক বিল্লাল হোসেন মজুমদার,সাবেক জেলা আওয়ামী লীগ নেতা রফিকুল ইসলাম ভূঁইয়া,অ্যাড.জসিম উদ্দিন পাটোয়ারী।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছির উদ্দীন আহমেদ তার বক্তব্যে বলেন, ‘ আওয়ামী লীগ এদেশের মাটি ও মানুষের দল। এদেশের সকল সোনালী অর্জন আওয়ামী লীগের হাত ধরে এসেছে।আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে আমরা মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে একটি স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশ পেয়েছি। এ মহান স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের জাতির পিতা। আওয়ামী লীগ যতোবার রাষ্ট্র ক্ষমতায় এসেছে মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়েছে। বর্তমানে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে বাংলাদেশ বিশ্ব মানচিত্রে একটি মর্যাদাশীল রাষ্ট্র।

তিনি আরো বলেন, ‘ চাঁদপুরে আওয়ামী লী এক এবং অভিন্ন। যারা দলের ভেতরে বিদ্ধেশ ছড়ায়, বিভাজন সৃষ্টি করে তারা সত্যিকার অর্থে আওয়ামী লীগের কেউ না। এরা সু্বিধাবাদি। দলের সুসময়ে এরা দলে ভিড়ে এবং দুঃসময়ে কেটে পড়ে। স্বাধীনতার পরাজিত শক্তিরা এখনো তাদের নানা ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। এদের বিরুদ্ধে আমাদের ঐক্যবদ্ধ থাকার কোন বিকল্প নেই।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল বলেন, ‘ আজকের এ দিনে আমরা চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষে থেকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং জাতীয় চার নেতারকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি। আওয়ামী লীগ মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্ব দেয়া দল। কাজেই যারা সত্যিকার ভাবে আওয়ামী লীগ করে, বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে লালন করে তারা কখনো বেঈমান-মোনাফেক হতে পারে না।’

তিনি বলেন, ‘ বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে এগিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু যারা দেশের অগ্রযাত্রাকে থামিয়ে দিতে ষড়যন্ত্র করছে, তাদের বিরুদ্ধে আমাদের সোচ্চার হতে হবে। আমাদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে।’

সভায় আরো বক্তব্য রাখেন, জেলা যুবলীগ নেতা আব্দুল মালেক মাস্টার,জেলা শ্রমিক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহবুবুর রহমান,জেলা মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি আবদুল মালেক দেওয়ান,জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক পারভেজ করিম বাবু,বঙ্গবন্ধু সমাজ কল্যাণ পরিষদের সভাপতি ইফতেখারুল আলম মাসুম,জেলা কৃষকলীগের সভাপতি এম আর হারুন,জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী রাজিয়া সুলতানা, রানু বেগম, পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি খোরশেদ হাওলাদার প্রমুখ।

জেলা আওয়ামী লীগের অন্যান্য কর্মসূচির মধ্য রয়েছে সকাল ৯ টায় করোনা প্রতিরোধে পথচারিদের মাঝে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্ক বিতরণ, সাড়ে ৯ টায় জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে বৃক্ষরোপন,দুপুর ১টায় এতিমদের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ।

সবশেষে বাদ আছর বিভিন্ন মসজিদ ও অন্যান্য ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ স্বাধীনতা যুদ্ধে যারা শহীদ হয়েছেন এবং মহামারী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এবং এর অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের যে সমস্ত নেতৃবৃন্দ মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের রুহের মাগফেরাত কামনায় মিলাদ ও দোয়া শেষে তাবারুক বিতরণ।

শেয়ার করুন