train ট্রেন

ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়ায় ৬ জোড়া ট্রেন থামবে

ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়া রেল স্টেশনে ট্রেনের যাত্রা বিরতির অনুমতি দিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। মঙ্গলবার থেকে সুরমা মেইল, ময়মনসিংহ এক্সপ্রেস, তিতাস কমিউটার (২) ও কর্ণফুলী কমিউটার এই পাঁচ জোড়া মেইল এক্সপ্রেস ও কমিউটার ট্রেন এবং বুধবার থেকে এক জোড়া আন্তঃনগর পারাবাত এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রা বিরতি করতে পারবে।

আজ রবিবার বাংলাদেশ রেলওয়ের পরিচালন বিভাগের উপ-পরিচালক মো. রেজাউল হক স্বাক্ষরিত এক নির্দেশে এমন তথ্য জানা যায়। ট্রেনের যাত্রাবিরতির সঙ্গে ট্রেন অপারেশনসহ স্টেশনের বাণিজ্যিক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। একই সঙ্গে নির্দেশনায় এই স্টেশনকে ‘ডি ক্লাস’ স্টেশনে রূপান্তর করা হচ্ছে।

রেজাউল হক বলেন, ‘ডি ক্লাসে রুপান্তর হওয়ার ফলে এই স্টেশনটি আপাতত এক লাইনে চলাচল করবে। ইঞ্জিন ঘুরানো যাবে না। শুধু যাত্রী ওঠা-নামা করবে। স্টেশনের সব কিছু জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে। পুরোপুরি চালু হতে এখনও সময় লাগবে।’

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর দিনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশ সফরকে কেন্দ্র করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলস্টেশনে মাদ্রাসার ছাত্ররা হামলা করে। এতে স্টেশনের একটি টিকিট কাউন্টার, কন্ট্রোল প্যানেল ও চেয়ার-টেবিল ভাঙচুর করে রেললাইনের ওপর নিয়ে অগ্নিসংযোগ করা হয়। ওই দিন ২৬ মার্চ বিকেল ৫টার দিকে ঢাকার সঙ্গে চট্টগ্রাম ও সিলেটের সাত ঘণ্টা রেল যোগাযোগ বন্ধ ছিল। পরে ২৭ মার্চ অনির্দিষ্টকালের জন্য সব ধরনের ট্রেনের যাত্রাবিরতি স্থগিত করে রেলওয়ে। স্বাভাবিক সময়ে প্রতিদিন ঢাকা-চট্টগ্রাম, ঢাকা-সিলেট ও ঢাকা-নোয়াখালী রেলপথে চলাচলকারী ১৪টি আন্তঃনগর ট্রেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশনে যাত্রাবিরতি করত।

শেয়ার করুন