থানা পুলিশের মাদকের বিরুদ্ধে সাঁড়াশী অভিযান

শাহরাস্তি থানা পুলিশের মাদকের বিরুদ্ধে সাঁড়াশী অভিযান

২০ দিনে তালিকাভুক্তসহ শীর্ষ ১২ জন আটক

 

মোঃ কামরুজ্জামান সেন্টুঃ
চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশের সাঁড়াশী অভিযানে গত ২০ দিনে থানার মাদক ব্যবসায়ী তালিকার শীর্ষ ৩ জন ও ১ নারীসহ ১২ জনকে আটক করেছে থানা পুলিশ।

পুলিশি অভিযানে গ্রেফতার এড়াতে ইতোমধ্যে এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে অনেক মাদকসেবী ও ব্যবসায়ী।

থানা সূত্রে জানা যায়, চলতি মাসের ৬ তারিখ হতে মাদকের বিরুদ্ধে সাঁড়াশী অভিযান শুরু হয়। এতে গত ২০ দিনে থানা পুলিশের মাদকের তালিকাভুক্ত ৩ শীর্ষ মাদক কারবারিসহ ১২ জনকে আটক করা হয়। আটককৃতদের বিরুদ্ধে ৪৬ টি মাদক মামলা চলমান রয়েছে।

সূত্র আরও জানায়, বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) রাত ১২ টার সময় টামটা দক্ষিণ ইউনিয়নের ধোপল্লা গ্রামে অভিযান চালিয়ে ওই বাড়ির হাবিবুর রহমানের পুত্র আন্তঃজেলা মাদক ব্যবসায়ী মনির হোসেন প্রকাশ মনু মিয়াকে (৩২) ১৮ পিচ মেথাম্পেটামিন ক্যাফেইন (ইয়াবা) ট্যাবলেটসহ আটক করে। তার বিরুদ্ধে পূর্বের ৮টি মাদক মামলা রয়েছে।
বুধবার (২৩ জুন) রাত ১২ টার সময় পৌরসভার পূর্ব উপলতা গ্রামের কাজী বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ওই বাড়ির মৃতঃ আবদুল হকের পুত্র আন্তঃজেলা মাদক ব্যবসায়ী কাজী খোকন (৫৪) প্রকাশ সিস্টেম খোকনকে ৩২ পিচ মেথাম্পেটামিন ক্যাফেইন (ইয়াবা) ট্যাবলেটসহ আটক করা হয়। তার বিরুদ্ধে হত্যা ও মাদকসহ ৬ টি মামলা চলমান রয়েছে।

শনিবার (১৯ জুন) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় উপজেলার ঠাকুর বাজারে অভিযান চালিয়ে ৫২ পিচ মেথেম্পেটামিন ক্যাফেইন (ইয়াবা) ও ১শ’ গ্রাম গাঁজাসহ শ্রীপুর গ্রামের মাদক ব্যবসায়ী নূরুজ্জামান সুমনকে (৪০) আটক করেছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে পূর্বের ১০টি মাদক মামলা রয়েছে।

বুধবার (৯ জুন) রাত ৯টার সময় পৌরসভার শুয়াপাড়া গ্রামের শরীফ হোসেনের ঘরে অভিযান চালিয়ে তার স্ত্রী তাসলিমা বেগমের কাছ হতে নীল রংয়ের বাতাস প্রতিরোধক পলিপ্যাকে রক্ষিত ৫২ পিচ ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করে পুলিশ। পুলিশের দাবী আটক তাসলিমা একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। সে পূর্বেও মাদকসহ আটক হয়েছিল। যার মামলা নং-৭/৬৬, তারিখঃ ০৬-০৩-২০১৯।

মঙ্গলবার (৮ জুন) রাতে অভিযান চালিয়ে চিতোষী পূর্ব ইউনিয়নের পানচাইল গ্রামের মৃতঃ আঃ মুনাফের পুত্র আঃ হালিমকে (৭০) ১০০ গ্রাম গাজা সহ আটক করা হয়। তার নামে ০২টি মামলা রয়েছে।

রোববার (৬ জুন) রাত সাড়ে ৮টায় অভিযান চালিয়ে শাহরাস্তি পৌরসভার পশ্চিম উপলতা গ্রামের দেলোয়ার হোসেনের বাড়ীর সামনে হতে ওই গ্রামের বেপারী বাড়ীর মৃত আরব আলীর পুত্র মোঃ খোরশেদ আলম (৩৭) ও টামটা দক্ষিণ ইউনিয়নের কুলশী ভূইয়া বাড়ীর দেলোয়ার ভূইয়ার পুত্র মোঃ রাসেলকে (২৫) ১০ পিচ ইয়াবা এবং ২০গ্রাম গাঁজাসহ আটক করে। আটক খোরশেদ আলমের বিরুদ্ধে ১১ টি মাদক মামলা চলমান।

রাত ১ টা ১০ মিনিটে টামটা উত্তর ইউনিয়নের চেঙ্গাচাল গ্রামে অভিযান চালিয়ে ডুসুয়া মিজি বাড়ীর বাবুল মিয়ার পুত্র মোঃ রুবেল (২২) ও একই গ্রামের জমিদার বাড়ির লাল মিয়ার পুত্র মোঃ হাসানকে (২৪) ১১ পিচ ইয়াবাসহ আটক করে।

ওইদিন রাত সাড়ে ১২ টার সময় মেহার দক্ষিণ ইউনিয়নের দেবকরা গ্রামে অভিযান চালিয়ে দেবকরা কাজী বাড়ীর মোঃ আনু মিয়ার পুত্র মোঃ মনির হোসেন (৩৮) ও একই গ্রামের মৃত জাফর আলীর পুত্র মোঃ আলী আশ্রাফকে (৪০) ২০ গ্রাম গাঁজাসহ আটক করে।
একই রাত সাড়ে ৯ টায় অভিযান চালিয়ে শাহরাস্তি মাজার সংলগ্ন ৩ রাস্তার মাথা হতে সূচীপাড়া দক্ষিণ ইউনিয়নের রাগৈ উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশ্ববর্তী নোয়া বাড়ীর ইসমাইল হোসেনের পুত্র জাহিদুল ইসলাম অভিকে (২০) ১০ পিচ ইয়াবাসহ আটক করে।

শাহরাস্তি উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আঃ আউয়াল মজুমদার জানান, মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশি অভিযানে চিহ্নিত মাদক কারবারিরা আটক হচ্ছে। এ অভিযান অব্যহত থাকলে আগামী কয়েক মাসে শাহরাস্তি উপজেলা শতভাগ মাদকমুক্ত হওয়া সম্ভব।

শাহরাস্তি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আবদুল মান্নান জানান, মাদকের সাথে সংশ্লিষ্ট কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। শাহরাস্তি থানা এলাকা কোন মাদক কারবারি বা সেবীর নিরাপদ আবাসস্থল হতে পারে না। মাদকের সাথে সম্পৃক্ত যেকোন ব্যক্তিকে আইনের আওতায় আনা হবে।

 

116 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন