সরকারি গাছ বিক্রয়

কচুয়ায় সরকারি রাস্তার গাছ বিক্রি!

নিজস্ব প্রতিনিধি : ১০ জুলাই, ২০২১ ১৩:৫৪

চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার কচুয়া-রঘুনাথপুর সড়কের কাদলা গাজী বাড়ির সামনে থেকে ৭টি গাছ কেটে বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে। ৭টি গাছের মধ্যে রয়েছে ৫টি চাম্বল ও ২টি রেইনট্রি। ওই গ্রামের গাছ ব্যবসায়ী আব্দুর রহিম ২৩ হাজার টাকায় গাছগুলো ক্রয় করে কাদলা বাজারস্থ তাপুর স’ মিলে নিয়ে যান।

আব্দুর রহিম জানান, কাদলা গাজী বাড়ির লন্ডন প্রবাসী মুক্তিযোদ্ধা সোলেমান গাজী ও তার ছেলে সাখাওয়াত এই গাছগুলো তাদের নিকট আত্মীয় কাদলা গ্রামের শাহ আলমের মাধ্যমে আমার নিকট বিক্রি করেন।

বন অধিদপ্তরের চাঁদপুরের কর্মকর্তা তাজুল ইসলাম জানান, গাছ কাটার বিষয়টি অবগত হয়ে সরেজমিনে গিয়ে দেখার জন্য অফিসের লোক পাঠিয়েছি। তারা ঘটনার সত্যতা পেয়ে আমাকে জানালে আমি তাৎক্ষণিক গাছের ক্রেতা আব্দুর রহিমকে গাছগুলো না চিড়ে স’ মিলে স্থিতিশীল অবস্থায় রাখার নির্দেশ দিয়েছি। এ ব্যাপারে বন অধিদপ্তরের বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দীপায়ন দাস শুভ জানান, গাছ বিক্রির অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করার জন্য বনবিভাগের কর্মকর্তাকে নির্দেশনা দিয়েছি। সত্যতা পেলে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সোলেমান মিয়াজী পরিবারের সদস্যদেরকে নিয়ে প্রবাসে থাকায় এ বিষয়ে তার বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি।

১৯৯৮ সালে কচুয়া-রঘুনাথপুর সড়কটি বন্যায় এলাকার ক্ষতিগ্রস্তদের আশ্রয়নের জন্য তৈরি করা হয়েছিল। কচুয়ার পশ্চিম অঞ্চলের বেশ কয়েকটি সড়কের মধ্যে এ সড়কটি ছিল অন্যতম। সড়ক প্রসস্থে ছিল ২৪ ফুট। সড়কটির শুধু কাদলা অংশেই নয়, প্রতিনিয়ত রাতের আঁধারে অনেকেই রাস্তার দুই পাশের গাছ কেটে নিচ্ছেন।

কাদলা গাজী বাড়ির সামনের রাস্তার গাছ কেটে নেওয়া হয়েছে

শেয়ার করুন