korona করোনা

চাঁদপুরে একদিনে সর্বোচ্চ ৪৯৮ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ৭

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চাঁদপুর জেলায় নতুন করে একদিনে সর্বোচ্চ সংখ্যক ৪৯৮ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। ২৬ জুলাই শনাক্তের সংখ্যা ছিলো ২৪১জন। এক লাফে জেলায় সনাক্তের হার দ্বিগুনেরও বেশী হয়েছে। নতুন ৪৯৮ জনসহ জেলায় করোনা সনাক্ত সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯০৮৬জন।

এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন ১৬৩ জন। নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়ে সদরের মো. শাহজাহান খান (৬৫) ও মতলব দক্ষিণ উপজেলার ইসহাক সরকার (৪৮) মৃত্যুবরণ করেছেন। এ ছাড়াও আরো ৫জন করোনা ইউনিটে মৃত্যুবরণ করেছে।

যাদের করোনা উপসর্গ ছিল। এ ছাড়াও একই দিন চাঁদপুর সদর হাসপাতালে করোনা উপসর্গ দিতে আসার সময় পথেই মৃত্যুবরণ করেছে ৫জন ও জেলার কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনা উসর্গেও নমুনা দিতে এসে কামরুন্নাহার (৪০) নামে এক নারী মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। তার বাড়ী জেলার মতলব দক্ষিণ উপজেলায়।

বুধবার (২৮ জুলাই) রাত ১১টায় চাঁদপুর সিভিল সার্জন কার্যালয়ের কোভিড আপডেট দৈনিক প্রতিবেদন সূত্রে জানাগেছে, (আরটি-পিসিআর ও রেপিড অ্যান্টিজেন টেস্টসহ) ১০৫৪ জনের নুমনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে পজিটিভ ৪৯৮জন এবং নেগেটিভ ৫৪৭জন।

করোনা সনাক্ত হওয়া নতুন ৪৯৮ জনের মধ্যে চাঁদপুর সদর উপজেলায় ২০৪জন, ফরিদগঞ্জ ৫৩, হাজীগঞ্জ ৪০, কচুয়া ৪৮, মতলব উত্তরে ৩৫, মতলব দক্ষিণে ৪৫, শাহরাস্তিতে ৫১ ও হাইমচরে ২২ জন।

এ পর্যন্ত জেলায় করোনা পজিটিভ রিপোর্ট ৯০৮৬টি, নেগেটিভ রিপোর্ট ৩১৯৬০টি। রোগীর সংখ্যা ৯১০৫জন। এর মধ্যে চাঁদপুর সদরে ৪০২৭জন, হাইমচর ৪৩১জন, মতলব উত্তর ৪৮১জন, মতলব দক্ষিণ ৭৮৬জন, ফরিদগঞ্জ ১০৩৮জন, হাজীগঞ্জ ৯০৩ জন, কচুয়া ৩৭৯জন ও শাহরাস্তি উপজেলায় ১০৬০জন।

এছাড়াও ঢাকা হতে আগত ৪ জন, লক্ষ্মীপুর থেকে আগত ২জন, মতলব দক্ষিন আইসিডিডিআরবি হতে প্রাপ্ত ৩০জন, কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হতে প্রাপ্ত ১জন ও নারায়নগঞ্জ থেকে আগত ১জন।

জেলায় এই পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়েছেন ৬৪২০জন। আজকে সুস্থ্য হয়েছেন ১২৫ জন। এর মধ্যে চাঁদপুর সদরে ৬১, ফরিদগঞ্জ ২৬, হাজীগঞ্জ ২৪, শাহরাস্তি ১৯, কচুয়া ৭, মতলব উত্তরে ১৩, মতলব দক্ষিণে ১০ ও হাইমচরে ৩জন।

জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা ১৬৩জন। এর মধ্যে চাঁদপুর সদরে ৬১জন, ফরিদগঞ্জ ২৬জন, হাজীগঞ্জ ২৪জন, শাহরাস্তি ২০জন, কচুয়া ৭ জন, মতলব উত্তর ১৩জন, মতলব দক্ষিণ ১০ জন ও হাইমচরে ৩জন।

করোনায় এ পর্যন্ত জেলায় চিকিৎসাধীন রোগী ২৫২২জন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৮৮ জন এবং হোম আইসোলেশনে ২৪৩৪জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে রোগী সংখ্যা ৫১৬৯জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়প্রাপ্ত রোগীর সংখ্যা ৪৯৭৬জন।

21 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন