উদ্ধার

চাঁদপুরে দীর্ঘদিন ধরে বাসায় আটকে রেখে মতলবের তরুণী দিয়ে পতিতাবৃত্তি

অনলাইন ডেস্ক

দীর্ঘদিন ধরে বাসায় আটকে রেখে চাঁদপুর সদর থানা এলাকায় এক তরুণীকে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করে আসছিল এক দম্পতি। অবশেষে জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ ফোন করে সহায়তা চাইলে ওই ভুক্তভোগী তরুণীকে উদ্ধার করে পুলিশ। রবিবার জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এর পরিদর্শক আনোয়ার সাত্তার বিষয়টি জানান।

তিনি বলেন, শনিবার (২৪ জুলাই) সকালে চাঁদপুর সদর থানা এলাকার একটি ভবন থেকে কান্নাজড়িত কণ্ঠে একজন তরুণী (১৮) ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে সহায়তা চান। তরুণীর ভাষ্যমতে, তার বাড়ি চাঁদপুরের মতলব থানা এলাকায়। প্রায় সাড়ে তিনমাস আগে তাকে মাহি-রিপন দম্পতি তাদের বাসায় কাজের কথা বলে নিয়ে আসেন।

কিন্তু তাকে দিয়ে ঘরের কাজের পরিবর্তে জোর করে পতিতাবৃত্তি করানো হচ্ছিল। এ ধরনের কাজ করতে অস্বীকার করলে তাকে মারধর করা হতো। এদিন তরুণী এক খদ্দেরের ফোন থেকে লুকিয়ে ৯৯৯-এ ফোন করে সহায়তা চায়।
পুলিশ পরিদর্শক আনোয়ার সাত্তার বলেন, ৯৯৯ তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি চাঁদপুর সদর থানায় জানিয়ে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য অনুরোধ জানায়। সংবাদ পেয়ে চাঁদপুর সদর থানা পুলিশের একটি দল অবিলম্বে ঘটনাস্থলে যায়।

পরে চাঁদপুর সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. রাশেদুজ্জামান ৯৯৯-কে জানান, তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে ভুক্তভোগী তরুণীকে উদ্ধার করেন। এ সময় তরুণীকে আটকে রেখে পতিতাবৃত্তির অভিযোগে মাহি আক্তার বর্ষা ওরফে মাকসুদা বেগম মাহি (২৬) এবং তার স্বামী রিপন গনিকে আটক করা হয়। এ বিষয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

26 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন