সরকারি হাসপাতালে অনিয়ম 2

চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালে অনিয়ম : হয়রানি ও বিড়ম্বনার শিকার নারী রোগীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক : চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের গাইনী গাইনি ও প্রসূতি রোগের চিকিৎসক বিউটি রানী সরকারের কক্ষে প্রতিনিয়ত ঔষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিরা দাঁড়িয়ে থাকায় চরম হয়রানি ও বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন নারী রোগীরা।

নিয়ম ভঙ্গ করে রোগী দেখার সময় ভিজিটের জন্য ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের প্রতিনিয়ত তার কক্ষে ঢোকার প্রশ্রয় দিচ্ছেন এই চিকিৎসক। তাদের সামনেই গাইনীর সমস্যা নিয়ে নারীদের বিভিন্ন গোপনীয়তার প্রশ্ন করছেন তিনি। এতে করে চরম বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন তার কাছে আসা গাইনি রোগীরা। এই চিকিৎসকের কক্ষে বিজেপি ছাড়াও ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিরা দীর্ঘ সময় ধরে দাঁড়িয়ে থাকার কারণে গাইনী সমস্যার গোপনীয়তার কথা লজ্জায় খুলে বলতে পাররছেন না চিকিৎসকের কাছে।
গত কয়েকদিন ধরে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের দ্বিতীয় তলার ডাক্তার বিউটি সরকারের ২০৩ নং কক্ষে এমনই অনিয়ম লক্ষ করা গেছে।

খবর নিয়ে জানা গেছে, চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে আসা বিভিন্ন ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিরা প্রতি শনি এবং মঙ্গলবার সপ্তাহে এ দুই দিন ভিজিট করার নিয়ম করে দিয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। অথচ সেই নিয়ম ভঙ্গ করে এই গাইনি ও প্রসূতি রোগের চিকিৎসক ডাক্তার বিউটি রানী সরকার কোম্পানি গুলো থেকে কমিশন পাওয়ার আশায় এমন অনিয়ম করে চলেছেন। হাসপাতালে রোগী দেখার সময় ভিজিট করার কারণে একদিকে যেমন রোগী দেখায় বিলম্ব হচ্ছে। অন্যদিকে তার কাছে সেবা নেওয়ার জন্য আসা দীর্ঘ লাইনে অপেক্ষা করে হয়রানির শিকার হচ্ছে রোগীরা।

গত সোমবার সরজমিনে হাসপাতালের দ্বিতীয় তলার তার ২০৩ নম্বর কক্ষে এমনই অনিয়ম চোখে পড়ে। ওইদিন চাঁদপুর শহরের বঙ্গবন্ধু সড়ক এলাকার শেফালী বেগম নামের এক রোগী গাইনী সমস্যা নিয়ে তার কাছে চিকিৎসাসেবা নিতে যান।, ওই সময় রোগী দেখা অবস্থায় তার সামনে একটি ওষুধ কোম্পানির দুইজন পুরুষ প্রতিনিধিকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। কিন্তু ডাক্তার বিউটি রানী সরকার তাদেরকে কক্ষ থেকে না সরিয়েই তিনি তাদের সামনে ওই রোগীকে গাইনি সমস্যার নানা প্রশ্ন করতে থাকেন। এসময় রোগী শেফালী বেগম লজ্জায় ডাক্তারকে ঠিকমতো কোন প্রশ্নের জবাব দিতে পারেননি। এ সময় ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের ছবি তুলতে গেলে তারা দৌড়িয়ে তার কক্ষ থেকে বের হয়ে যান।

চাঁদপুর জেলার এই সরকারি হাসপাতালে ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের এমন বিড়ম্বনা থেকে মুক্তি পেয়ে ডাক্তারের কাছে প্রকৃত চিকিৎসা সেবা পাওয়ার জন্য এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার নিতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছেন ভুক্তভোগী নারী রোগীরা।

এ বিষয়ে ডাক্তার বিউটি রানী সরকারকে জিজ্ঞেস করলে তিনি এ প্রতিবেদকের সাথে নানা তর্কে জড়িয়ে যান। রোগী দেখার সময়ে বিজিটের দিনের বাইরে কেন ঔষধ কোম্পানীর প্রতিনিধিরা কক্ষে প্রবেশ করেছে, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি তা অস্বীকার করে বলেন, কখন তারা কক্ষে ঢুকেছে আমি তা কিছুই বলতে পারব না।

এ বিষয়ে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাক্তার হাবিব-উল করিমের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, ডিজিটের দিনের বাহিরে কোন ওষুধ কোম্পানির লোক এই হাসপাতালে কোন চিকিৎসকের কক্ষে রোগী দেখার সময়ে ভিজিট করার কোন নিয়ম নেই। তারপরও যেহেতু বিষয়টি জেনেছি আমি এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিবো।

শেয়ার করুন