life style health

পেইন কিলার ঔষধের নাম

ব্যথা নাশক ঔষধকে পেইন কিলার বলে। যেকোন শারীরিক ব্যথায় আমরা পেইন কিলার খাই। অনেকেই সামান্য ব্যথাতেই পেইন কিলার (যেমনা : Tab. Tory প্যারাসিটামল, অ্যাসপিরিন, ডাইক্লোফেনাক, কিটোরোলাক, নেফ্রোক্সেন, আইবোপ্রোপেন, কিটোপ্রোপেন, ইটোরিকক্সিভ, রফিকক্সিভ ইত্যাদি) খেতে অভ্যস্ত।

কিন্তু এই ধরনের ঔষধের কি যে ভয়ংকর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া তা আমরা দেখতে চাই কী?

* পেইন কিলারের ক্ষতিকর প্রভাবগুলোর কিছু অংশ নিচে লক্ষকরুণ:
1) নিয়মিত ব্যাথা নাশক ঔষধ খেলে পরিপাকতন্ত্রে (পাকস্থলিতে ক্ষত বা আলসার) হয়। পরে আলসার ক্যান্সারে রূপ নিতে পারে বা পাকস্থলি ছিদ্র হতে পারে।

2) যাদের উচ্চ রক্তচাপ বা হাইপারটেনশন অাছে তাদের ব্লাড প্রেসার বেড়ে যায়। কারন ব্যাথা নাশক ঔ্ষধ কিডনির কাজকে প্রভাবিত করে। দেহে পানি সঞ্চয় করে। ফলে ইফেক্টিভ্ সার্কোলেটরী ব্লাড ভলিউম বেডে গিয়ে রক্তচাপকে আরো বাড়িয়ে দেয়।

3) যেকোন পেইন কিলার লিভার (কলিজা) ও কিডনিতে(বৃক্ক) বিষক্রিয়া সৃস্টি করে। ফলে যখন তখন পেইন কিলার খেলে লিভার ও কিডনি নষ্ট হয়ে যায়। টক্সিক ডোজের ক্ষেত্রে হেপাটিক এ্নক্যাপালো্প্যাথি ( লিভার সমস্যা জনিত ব্রেইন এর রোগ) হয়।

4) বার্ধক্যে ও যাদের বাতজ্বর আছে তাঁরা আনেকেই নিয়মিত পেইন কিলার খায়। তাই তাঁদের ক্ষেত্রে ক্ষতিকর ঝুকি বেশি।

5) গর্ভকালীন ব্যথা নাশক ঔষধ খেলে বাচ্চার নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে।

6) যাদের এ্যাজমা বা শ্বাসকস্টের সমস্যা আছে তাঁদের শ্বাস কষ্ট বেড়ে যায়।

7) শরীরের বিভিন্ন স্থান থেকে রক্তক্ষরণ হতে পারে। কখনো কখনো অ্যাপ্লাস্টিক অ্যানেমিয়া ও থ্রম্বোসাইটোপেনিয়াও হতে পারে।

* ব্যথা নাশক ঔষধের এতোসব খারাপ প্রভাব থাকলেও আমরা প্রয়োজনে এগুলো ব্যবহার করি।

তাই এসব ড্রাগ (ঔষধ) সেবনের অন্তত বিশ মিনিট পূর্বে অবশ্যই এন্টি আসলারেন্ট ঔষধ (যেমন: অমিপ্রাজল, ইসোমিপ্রাজল, পেন্টোপ্রাজল, লেন্সোপ্রাজল, রেনিটিডিন, ফেমোটিডিন, সেমেটিডিন ইত্যদি) খেয়ে নিতে হবে। তাহলে অন্তত পাকস্থলিটাকে কিছূটা হলেও রক্ষা করতে পারবেন।

* বাতজ্বর, ব্লাড ও হার্টের রোগীরা শুধুমাত্র যথাযত প্রেস্ক্রিপসন অনুযায়ী পেইন কিলার (এন্টি ইমপ্লামেটরী ড্রাগ হিসেবে) খাবেন।

সুতরাং, পেইন কিলার সাবধানে খান, লিভার ও কিডনি বাঁচান।  সামান্য ব্যথাতে অবশ্যই অ্যালোপ্যাথিক পেইন কিলার খাবেন না। তবে ইউনানী ঔষধ খেলে উপরোক্ত সমস্যা হয় না। তাই ইউনানী ঔষধ খেতে পারেন। নিম্নোক্ত চিকিৎসকের সাথে পরামর্শ করে আপনার অবস্থা জানিয়ে যে কোনো সমস্যায় ঔষধ নিতে পারবেন।

ঔষধ পেতে যোগাযোগ করুন :

হাকীম মিজানুর রহমান (ডিইউএমএস)

হাজীগঞ্জ, চাঁদপুর।
একটি বিশ্বস্ত অনলাইন স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠান।

মুঠোফোন : 01742057854, ইমো/হোয়াটস অ্যাপ : 01762240650

শ্বেতীরোগ, যৌনরোগ, পাইলস (ফিস্টুলা) ও ডায়াবেটিসের চিকিৎসক।

সারাদেশে কুরিয়ার সার্ভিসে ঔষধ পাঠানো হয়।

 

শেয়ার করুন