ফসলি জমি থেকে কৃষকের মৃতদেহ উদ্ধার

শাহরাস্তিতে ফসলি জমি থেকে কৃষকের মৃতদেহ উদ্ধার

শাহরাস্তিতে কৃষক বেলায়েত হোসেন রিপন হত্যার ঘটনায় ২ জন আটক

মোঃ কামরুজ্জামান সেন্টু :
চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে কৃষক বেলায়েত হোসেন রিপন হত্যার ঘটনায় ২ জনকে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার (২৪ জুলাই) জেলা পুলিশ সুপার মোঃ মিলন মাহমুদ প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, উপজেলার রায়শ্রী উত্তর ইউনিয়নের গঙ্গারামপুর গ্রামে ফসলি জমি হতে ওই কৃষকের মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে ঘটনার দিনই জড়িত সন্দেহে একই গ্রামের মৃত হাসানুজ্জামানের পুত্র মোঃ ফজলুর রহমান (৪৫) ও তার স্ত্রী আমেনা বেগমকে (৩০) আটক করে পুলিশ।

আটকের পর তাদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, ফজলুর রহমানের স্ত্রী আমেনা বেগমের সাথে দীর্ঘদিন ধরে নিহত বেলায়েতের পরকীয়া সম্পর্ক চলে আসছিলো। এ নিয়ে ইতোপূর্বে বেশ ক’বার সালিশ বৈঠক হয়েছে। ঘটনার দিন (২২ জুলাই) রাতে আমেনা বেগমকে বেলায়েত মুঠোফোনে তার স্বামী বাড়িতে আছে কিনা জিজ্ঞেস করলে তিনি বাড়িতে নেই বলে জানান।

পরবর্তীতে বেলায়েত ওই বাড়িতে ঘটনার দিন রাত ৮টায় হাজির হন। এরই মধ্যে আমেনা বেগমের স্বামী ফলজুর রহমান গরুর খাবারের জন্য বাড়িতে ফিরে আসে এবং বেলায়েতকে পাশ্ববর্তি খড়ের গাদার পাশে দেখতে পায়। বেলায়েত আমেনার স্বামীকে দেখতে পেয়ে বাড়ির উত্তর-পশ্চিম দিকে দৌড়ি পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। ওই সময় বেলায়েত লাইলনের জালের সাথে পেঁচিয়ে পড়ে গেলে ফজলুর রহমান তার হাতে থাকা বাঁশের লাঠি দিয়ে মাথার পিছনে স্বজোরে আঘাত করলে ঘটনাস্থলেই বেলায়েতের মৃত্যু হয়।

পরবর্তীতে ফজলুর রহমান ও তার স্ত্রী আমেনা বেগম নিহত বেলায়েতের গলায় রশি লাগিয়ে টানা হেঁচড়া করে পাশ্ববর্তি বিলের পানিতে ভাসিয়ে দেয়। পুলিশ আসামীদের স্বীকারোক্তিতে ঘটনায় ব্যবহৃত বাঁশের লাঠি, রশি ও লাইলনের জাল উদ্ধার করে।

শাহরাস্তি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আবদুল মান্নান জানান, ঘটনার পর স্থানীয়দের তথ্য মতে নিহত বেলায়েতের পরকীয়ার সংবাদ জানতে পারি। সে মতে ২ জনকে জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হলে তারা ঘটনায় জড়িতের কথা স্বীকার করেন। মামলার তদন্ত অব্যাহত রয়েছে।

পারিবার সূত্রে জানা যায়, নিহত রিপনের ২কন্যা ও ১ পুত্র সন্তান রয়েছে।

 55 সর্বমোট পড়েছেন,  1 আজ পড়েছেন

শেয়ার করুন