প্রায় ২শ বছরের চলাচলের পথে অবরোধ r

হাজীগঞ্জে প্রায় ২শ বছরের চলাচলের পথে অবরোধ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট :
চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে প্রায় দুই শত বছরের পুরানো চলাচলের রাস্তা অবরোধের অভিযোগ উঠেছে। এতে প্রায় ৫ শতাধিক ব্যক্তির চলাচলে চরম দূর্ভোগে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

৮ জুলাই বুধবার সরেজমিনে গিয়ে এমন বাস্তব চিত্র দেখা যায়, উপজেলার ৫নং সদর ইউনিয়নের সুহিলপুর গ্রামে।

দেখা যায়, সুহিলপুর খামার বাড়ীর ছেফায়েত উল্ল্যাহ, আবু বক্কর ও ছিদ্দিক গং বাড়ীর চলাচলের পথে টিন ও বাঁশের বেড়া, পাকা দেওয়াল এবং বসতঘর নির্মান করে রেখেছে। এতে করে বাড়ীর ছোট বড় মানুষ চলাচল করতে গিয়ে প্রায় আঘাত প্রাপ্ত হতে হয়েছে। বিশেষ করে বিশাল এ জনবসতি বাড়ির লোকজন মসজিদে নামাজ আদায় করতে গিয়ে রাত বিরাতে পথের টিনের বেড়ায় খোঁচ লেগে শরীল ও জামা কাপড় ছিঁড়ে পড়ার মত একাধিক ঘটনা ঘটেছে।

বাড়ীর চলাচরত বাসিন্দা হুমায়ন, আবু বক্কর, রুবেল, ফয়শাল, রাসেল ও নূর মোহাম্দ বলেন, প্রায় দুই শত বছরের পুরানো আমাদের এ বাড়ীর একমাত্র চলাচলের পথ। সিএস ও আরএস ১২২৯ দাগে এবং বিএস খতিয়ানে ২ একর ৬৬ শতাংশের মালিক ছেফায়েত উল্ল্যাহ, আবু বক্কর ও ছিদ্দিক গং। গত কিছু দিন পূর্বে নকশা অনুযায়ী তারা ২ একর ৭১ শতাংশ মালিক দাবি করে নিয়ে যায়। এর পর থেকে তারা রাস্তার দক্ষিন পাশে অধেক জায়গা দখল করে টিন ও বাঁশের বেড়া এমনকি দেওয়াল নির্মাণ পর্যন্ত করে রেখেছে।

আমরা বাড়ীর বায়তুল মুনাব্বর জামে মসজিদে নামাজ পড়তে গিয়ে পড়তে হয় বিপাকে। আমাদের এ খামার বাড়ীর ছোট বড় মিলে প্রায় ৫ শতাধিক লোক স্কুল, মাদ্রাসা, বাজারে যেতে পড়তে হচ্ছে চরম ভোগান্তিতে। কারন আমাদের বাড়ীর তিন পাশে খাল, একমাত্র চলাচল পূর্ব পাশের এ এজমালি পথটি। সেই পথে তারা বাধাঁ হয়ে দাড়িয়েছে। আমরা বাড়ীর ৯০ ভাগ লোক দাবি জানাই, দুইশ বছরের পুরানো পথে যেন কেউ বাধাঁ প্রধান না করে সে জন্য প্রশাসনের সৃ-দৃষ্টি কামনা করছি।

এ বিষয়ে প্রতিপক্ষের মতামত, আমরা নকশা অনুযায়ী বাড়ী মেপে দখলে যাওয়ার চেষ্টা করেছি, এতে তারা প্রতিবন্ধকতা মনে করলে আমাদের কিছু করার নেই।

শেয়ার করুন