বিধি নিষেধ উপেক্ষা করে বিয়ের আয়োজন

হাজীগঞ্জ বিধি নিষেধ উপেক্ষা করে বিয়ের আয়োজন, অতঃপর ইউএনওর উপস্থিতি

নিজস্ব প্রতিবেদক :

ধুমধামে বিয়ের আয়োজন আলোকসজ্জা, ডেকোরেশন, আর্কষণীয় গেইট,মেহমান আপ্যায়নের ব্যবস্থা কোন কিছুতেই কমতি ছিল না, বিয়ে বাড়ি বলে কথা তাও আবার হিন্দু বিয়ে। একটু বড় পরিসরে বাড়িতে আয়োজন না হলে কি হয়। আবার যদি নাতিনের বিয়ের আয়োজন হয় নানার বাড়িতে তাহলেতো সোনায় সোহাগা।

করোনা মহামারিতে সরকারি বিধি নিষেধ উপেক্ষা করে এমনই একটি বিয়ের আয়োজন চলছিল চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ উপজেলা ধড্ডা গ্রামের স্বপন দাস(৫০) এর বাড়িতে। গত তিন মাস আগ থেকেই হাজীগঞ্জের কৈয়ারপুল এলাকার হারাদন দাসের ছেলে কমল চন্দ্র দাসের সাথে স্বপন দাসের নাতনী কুমিল্লা জেলার লাকসাম থানার অমল চন্দ্র দাসের মেয়ে রেখা রানী(১৮) দাসের বিয়ের লগ্ন ঠিক করা ছিল। সেই লগ্ন অনুযায়ী ২৮ জুলাই (বুধবার) চলছিল উক্ত বিয়ের আয়োজন।

খবর পেয়ে রাত ৯ টা ৩০ মিঃ এর সময় বিয়ে বাড়িতে এসে স্ব- শরীরে এসে উপস্থিত হন হাজীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও এক্সিকিউটিভ মেজেস্ট্রেট মোমেনা আক্তার। এবং করোনা মহামারির বিধি নিষেধ থাকায় সকল আয়োজন বন্ধ করে দিয়ে লগ্ন ঠিক রেখে শুধু মাত্র ২ পরিবারের ২জন করে ৪ জনের উপস্থিতিতে বিয়ের কাজ সম্পূর্ণ করার অনুমতি দিয়ে নিজে দাঁড়িয়ে থেকে বাকী আয়োজন বন্ধ করে দেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় চেয়ারম্যান মো. জাকির হোসেন লিটু, হাজীগঞ্জ থানার এসআই মাসুদ মুন্সিসহ সঙ্গীয় ফোর্স, হাজীগঞ্জ উপজেলা সিএসও ফয়সাল মুন্সিসহ অন্যান্য কর্মকর্তা ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও এক্সিকিউটিভ মেজেস্ট্রেট মোমেনা আক্তার বলেন -হিন্দু বিয়ে মানে অনেক বড় একটা আয়োজন এবং লগ্নের একটা বিষয় আছে তাই লগ্ন ঠিক রেখে চারজনের উপস্থিতিতে বিয়ে অনুমতি দেওয়া হয়েছে আর করোনা সংক্রমণ রোধে অন্যান্য আয়োজন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

13 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন