রাস্তা মেরামত

অবশেষে ফরিদগঞ্জ পৌরসভার রাস্তা সম্প্রসারণপূর্বক ড্রেনের কাজ করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ

ফরিদগঞ্জ করেসপন্ডেন্ট :
ফরিদগঞ্জ পৌরসভার রাস্তা সম্প্রসারণপূর্বক ড্রেন নির্মাণ কাজ করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে পৌর কর্তৃপক্ষ।

গত ১১ আগস্ট ২০২১ খ্রিস্টাব্দে অনলাইন পত্রিকা চাঁদপুর রিপোর্টে “ফরিদগঞ্জ পৌর সভায় অপরিকল্পিত ড্রেন নির্মাণে দু‘কোটি টাকা অপচয়ের উপক্রম শিরোনামে” সংবাদ ছাপানোর প্রেক্ষিতে প্যানেল মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের পাটওয়ারী বুধবার সরেজমিন ড্রেনের কাজ পরিদর্শণ করে রাস্তা সম্প্রসারণ করে ড্রেন নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করতে প্যানেল মেয়র আব্দুল মন্নান পরানকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেন।

সে প্রেক্ষিতে বৃহপতিবার বিকেলে প্যানেল মেয়র আব্দুল মন্নান পরান পৌর সভায় নিজ কার্যালয়ে বাজার ব্যবসায়ী কমিটির নেতৃবৃন্দ, দোকার মালিক ও দোকান ভাড়াটেদের নিয়ে পরামর্শ পূর্বক ৩ দিন সময় বেধেঁদিয়ে প্রস্তুতি নিতে বলেন।এ সময় তিনি বলেন, আমরা আগামী সোমবার উত্তর পাশের্^র দোকানগুলোর ৩ ফিট ভোলডোজার মেশিন দিয়ে ভেঙ্গে ড্রেন নির্মাণ করা করবো।

এ সময় বাজার কমিটির নেতৃবৃন্দ ও দোকান মালিকরা ভাড়াটেসহ এক মত পোষণ করেন। রাস্তা সম্প্রসারণ পূর্বক ড্রেনের কাজ করার চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ায় ওঁই পথে চলাচল কারীরা সন্তোষ প্রকাশ করেন। একই সাথে এ সিদ্ধান্তের ফলে ফরিদগঞ্জ -চাঁদপুর বিকল্প সড়ক , ফরিদগঞ্জ উত্তর ও পূর্বাঞ্চলের মানুষের মালামাল বহনে বড় ও ভারি যানবাহন চলাচলে পূর্বের চেয়ে আরো স্বাচ্ছন্দে যাতায়াতের সুযোগ সৃষ্টি হলো।

সভায় উপস্থিত ছিলেন বাজার কমিটির সভাপতি মোঃ ফারুক হোসেন, সেক্রেটারী মোঃ মিজানুর রহমান, ইত্তেফাক প্রতিনিধি সহকারী অধ্যাপক মোঃ মহিউদ্দিনসহ ব্যবসায়ী প্রমুখ।

এ বিষয়ে প্যানেল মেয়র বলেন, মেয়র মহোদয় সরেজমিন পরিদর্শন করে রাস্তা সম্প্রসারণের উদ্যোগ নেওয়ায় যানবাহন ও মানুষ জনের চলাচলে এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করা হয়েছে। দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা পুরুন হলো ওই পথের চলাচলকারীদের।

বাজার কমিটি, এলাকার লোকজন, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ জানান, এ উদ্যোগকে আমরা অব্যশই সাধুবাদ জানাই কেকনা এ কাজটি করা হলে , ওঁই অংশে যে দির্ঘযানজট লেগে থাকতো তা দূর হবে। পাশাপাশি আমাদের দাবী সড়কের দক্ষিণ পাশের্^ও অংশ বিশেষ সম্প্রসারণ করে সড়কের প্রসস্থ্যতা বাড়ানোর। এ লিং রোড অংশে মালামাল লোড আনলোড যখন তখন না করার নিষেজ্ঞা থাকলেও মানছেনা ব্যবসায়ীরা। তাই এ বিষয়ে আরো শক্ত পদক্ষেপ নেয়া উচিত মনে করছেন সংশ্লিষ্ট এলাকাবাসী।

76 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন