আশায় রাতভর সুড়ঙ্গ পাহারা

গুপ্তধনের আশায় রাতভর সুড়ঙ্গ পাহারা

ওমর ফারুক সায়েম, কচুয়া প্রতিনিধি :
হাজীগঞ্জ-কচুয়া-গৌরীপুর সড়কের ডুমুরিয়া নামক স্থানে শুক্রবার সন্ধ্যায় সড়কের মাঝে সুড়ঙ্গ দেখা দেয়। এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে মুহূর্তের মধ্যেই এলাকার লোকজন সুড়ঙ্গটি এক নজর দেখতে উৎসুক জনতা ভিড় জমায়। ফলে সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

শুরু জল্পনা কল্পনা। একপর্যায়ে গুঞ্জন উঠে এ সুড়ঙ্গের নিচে রয়েছে গুপ্তধন। গুপ্তধন পাওয়ার আশায় রাতভর বেশ কিছু লোকজন এ সুড়ঙ্গটি পাহারা দেয়।

জনশ্রæতি রয়েছে যে, ডুমুরিয়া গ্রামের প্রাণ গোপাল ভূইয়া ছিল একসময়ের জমিদার। ওই জমিদারদের আমলে দীঘিটি খনন হয়। দিঘীটি রামভদ্র দীঘি নামে পরিচিত ছিল। এ দীঘি থেকে একসময় মানুষের বিয়ে ও সামাজিক অনুষ্ঠানে চাহিদা অনুযায়ী দীঘির পাড়ে গিয়ে থালা-বাসন, পাতিলসহ বিভিন্ন প্রয়োজনীয় সামগ্রী পাওয়ার প্রার্থনা জানালে তা কিছুক্ষণ পর দীঘিতে ভেসে উঠতো। একসময় এক অনুষ্ঠানে নেওয়া কিছু থালা বাসন রেখে দেওয়ার কারনে ওই থেকে আর থালা-বাসন ও অনান্য সামগ্রী ভেসে উঠা বন্ধ হয়ে যায়।

আরো পড়ুন : জেনে নিন যৌন রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার

এই দীঘির উপর দিয়েই এ আঞ্চলিক মহাসড়কটি নির্মিত হয়। জমিদার ভূঁইয়াদের আমলে এ দীঘির অংশে গুপ্তধন লুকানো হয় বলেও জনশ্রæতি রয়েছে। সেই গুপ্তধন উক্ত সুড়ঙ্গ পথে বেড়িয়ে আসতে পারে বলে স্থানীয়রা ধারনা করে। এধারণার বশবর্তী হয়ে তারা গুপ্তধন পাওয়ার জন্য লোভী হয়ে উঠে।

আরো পড়ুন : গেজ, অশ্ব,পাইলসের সহজ চিকিৎসা

সুড়ঙ্গের বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দীপায়ন দাস শুভকে অবগত করালে তিনি তাৎক্ষণিক সড়ক ও জনপথ বিভাগের চাঁদপুরের প্রকৌশলীকে সুড়ঙ্গ সৃষ্টির বিষয়টি জানিয়ে উহা ভরাটের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বলেন। শনিবার সকালে ঘটনাস্থলে চাঁদপুর সড়ক ও জনপথের লোক এসে বালু দিয়ে সুড়ঙ্গটি ভরাট করে দেয়।

 32 সর্বমোট পড়েছেন,  1 আজ পড়েছেন

শেয়ার করুন