উদ্ধারে নারীকে একা পেয়ে হাত পা ভেঙ্গে অমানবিক নির্যাতন

শত্রুতা উদ্ধারে নারীকে একা পেয়ে হাত পা ভেঙ্গে অমানবিক নির্যাতন

 নিজস্ব প্রতিবেদক :

চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলায় মারধরের বিচার চেয়ে থানায় অভিযোগ করায় পূর্ব শত্রুতা উদ্ধারে সাথী আক্তার (২৬) নামের এক নারীকে একা পেয়ে সঙ্গবদ্ধ হয়ে অতর্কিতভাবে হামলা চালিয়ে হাত-পা ভেঙ্গে শারিরীক ভাবে অমানবিক নির্যাতন করা হয়েছে। এতে ওই নারী শারীরিকভাবে চরম নির্যাতিত হয়ে মুমূর্ষ অবস্থায় চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

১৫ সেপ্টেম্বর বুধবার বেলা ১২ টায় মতলব দক্ষিণ উপজেলার শিলমন্দি গ্রামের প্রধানীয়া বাড়িতে ( বড় বাড়ি) এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহত সাথী আক্তার ওই বাড়ির বাবুল প্রধানিয়ার মেয়ে। এর পূর্বেও হামলাকারীরা ভুক্তভোগী পরিবারের দুই বোনকে এবং তাদের মাকে বেশ কয়েকবার তাদেরকে নিরহ পেয়ে একই ভাবে হামলা চালিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে বলেও অভিযোগ রয়েছে।

আহত সাথী আক্তার ও তার পরিবারের লোকজন জানায় গত কয়েক বছর ধরে একই বাড়ির হালিম প্রধানীয়ার ছেলে সিদ্দিক প্রধানিয়া, হারুন প্রধানীয়া গংদের সাথে তাদের দীর্ঘদিন ধরে বাড়ির জমি জমা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে। এই বিরোধকে কেন্দ্র করে গত কয়েক বছরে তারা একই ভাবে তাদের পরিবারের উপর এভাবে অতর্কিত হামলা চালিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে বলে অভিযোগ।

আরো পড়ুন : শ্বেতীর সাদা দাগ দূর করার উপায়

এনিয়ে ভুক্তভোগীরা চাঁদপুর আদালতেও একটি মামলা দায়ের করেছে। আর ওই মামলাকে কেন্দ্র করেই তারা তাদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে প্রায় সময় সাথী আক্তারের পরিবারের সাথে ঝগড়ায় লিপ্ত হয় এবং তাদেরকে মারধর করে।

গত কয়েকদিন পূর্বে সিদ্দিক প্রধানীয়া তাদের একটি পরিত্যক্ত রান্নাঘর ভেঙ্গে তাদের উপর দোষ চাপিয় মতলব থানায় মিথ্যে অভিযোগ দায়ের করেন। এমন মিথ্যে অভিযোগের ভিত্তিতে ভুক্তভোগী পরিবারও তাদের বিরুদ্ধে মতলব দক্ষিণ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

উভয় পক্ষের পাল্টাপাল্টি অভিযোগের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মতলব থানায় বসে তাদের সে বিরোধ মীমাংসা করার কথা ছিলো। কিন্তু তার আগেই অভিযুক্তরা আহত সাথী আক্তার কে বাড়িতে একা পেয়ে তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার ওপর এ নির্যাতন চালায় বলে অভিযোগ।

আরো পড়ুন : মেহ প্রমেহ ও প্রস্রাবে ক্ষয় রোগের কার্যকরী সমাধানসমূহ

এদিকে বুধবার বেলা ১২ টায় সাথী আক্তারের পরিবারের কোন লোকজন বাড়িতে না থাকায় তারা তাকে একা পেয়ে সংঘবদ্ধভাবে তার উপর অতর্কিত ভাবে হামলা চালায়। সাথী আক্তার জানান, এসময় হামলাকারী সিদ্দিক প্রধানিয়া, হারুন প্রধানীয়, শাহনাজ বেগম, জাহানারা বেগম দেশীয় অস্ত্র দিয়ে তাকে এলোপাতাড়ি মারধর করেন।

হামলাকারীরা তারা তাকে তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে বেধড়কভাবে শারীরিক নির্যাতন করে বাম হাত এবং বাম পায়ের হাড় ভেঙ্গে দেয়। এছাড়াও তারা তাকে কাঠ দিয়ে শরীরের বিভিন্ন আপত্তিকর স্থানে আঘাত করে নীলা ফুলা জখম করেন। যাতে কাউকে সে আঘাতের চিহ্ন না দেখাতে পারেন। এসময় সাথী আক্তারের মেয়ে তাদের হামলার ভিডিও দৃশ্য ধারন করার সময় হামলাকারীরা তাদের মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে চাঁদপুর আদালতে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগী পরিবার।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত সিদ্দিক প্রধানীয়ার সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি তা অস্বীকার করে বলেন, সে সাথী আক্তার তাদের গরুঘর মেরামত করার সময় আমি তাকে বাঁদা দিয়েছি এবং তার সাথে আমাদের ঝগড়া হয়। তারপর আমি বাড়ি থেকে চলে এসেছি। এরপর কি হয়েছে আমি তা জানিনা।

এ বিষয়ে মতলব দক্ষিণ থানার এসআই শামসুদ্দিনের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি বলেন তাকে মারধরের ঘটনার বিষয়ে আমি জেনেছি। আহত সাথী আক্তার থানায় এসে তাকে নির্যাতনের চিহ্ন দেখিয়েছেন। আমি আগে তাদেরকে চিকিৎসা সেবা নেওয়ার জন্য পরামর্শ দিয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তীতে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো পড়ুন : পাইলস রোগে করণীয়

আরো পড়ুন : জেনে নিন দীর্ঘক্ষণ মিলনের ঔষধ

আরো পড়ুন : একজিমা হলে কী করবেন?

19 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন