rape logo ne

৬ মেয়েকে ধর্ষণ করলেন বৃদ্ধ, শিশু ধর্ষণ করে পড়লেন বিপাকে

অনলাইন ডেস্ক :

পরপর ছয়টি মেয়েকে ধর্ষণের পর টাকা দিয়ে অপরাধ আড়াল করার অভিযোগ ছিল এক বৃদ্ধের বিরুদ্ধে। এবার এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে তাকে খুঁজছে পুলিশ। এ ঘটনায় থানায় মামলাও হয়েছে।

অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম ছালাম উল্লা (৬০)। তার বাড়ি বাহুবল উপজেলার সম্ভুপুর গ্রামে। শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে স্থানীয় আশ্রয়ন প্রকল্পের এক বাসিন্দা তার বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করেন।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, শনিবার সকালে মা-বাবা ঘরে না থাকার সুযোগে আশ্রয়ন প্রকল্পের আট বছর বয়সী একটি মেয়েকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যান ছালাম। খবর পেয়ে উপজেলা ও পুলিশ প্রশাসনের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে যান। শনিবার রাতেই মেয়েটির বাবা থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

বাহুবল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাকিবুল হাসান খান জানান, ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মেয়েটিকে হবিগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেপ্তারে পুলিশি অভিযান চলছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) স্নিগ্ধা তালুকদার বলেন, মেয়েটির বাবা বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অস্বচ্ছল। তাই মুজিববর্ষ উপলক্ষে ভবানীপুর আশ্রয়ন প্রকল্পে তাকে একটি ঘর দেওয়া হয়েছিল। মেয়েটিকে ধর্ষণের অভিযোগ জানতে পেরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ বিষয়ে ঊর্ধ্বতন মহলে অবগত করা হয়েছে। অভিযুক্তকে দ্রুত গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশকে বলে দেওয়া হয়েছে। ঘটনার পর নির্যাতনের শিকার মেয়ে ও তার বাবা-মাকে নির্বাক থাকতে দেখা গেছে বলেও তিনি জানিয়েছেন।

উপজেলা প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বলেন, এর আগে ছালামের বিরুদ্ধে আরও ছয়টি মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে। নির্যাতনের শিকার মেয়েদের পরিবারকে টাকা-পয়সা দিয়ে অপরাধ আড়াল করেছেন ওই বৃদ্ধ। তাকে দ্রুত গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা প্রয়োজন।

আরো পড়ুন : শ্বেতী রোগের কারণ, লক্ষ্মণ ও চিকিৎসা

আরো পড়ুন : যৌন রোগের কারণ ও প্রতিকার

আরো পড়ুন : ডায়াবেটিস প্রতিকার ও প্রতিরোধে শক্তিশালী ঔষধ

আরো পড়ুন : মেহ প্রমেহ ও প্রস্রাবে ক্ষয় রোগের কার্যকরী সমাধানসমূহ

আরো পড়ুন : গেজ, অশ্ব,পাইলসের সহজ চিকিৎসা

247 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন