chandpurreport 72

চাঁদপুরে গুলিবিদ্ধ হয়ে ৪ মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত কমিটি

নিউজ ডেস্ক : চাঁদপুরে একাধিক মন্দিরে হামলার ঘটনায় সাধারণ জনতা ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে চারজন নিহত হওয়ার ঘটনায় জেলা প্রশাসন তদন্ত কমিটি গঠন করেছে।

চাঁদপুরের ডিসি অঞ্জনা খান মজলিশ জানান, জেলার হাজীগঞ্জ উপজেলার মন্দিরে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রধান করে তারা পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট এই তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন। কমিটিকে আগামী সাত কার্য দিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

বুধবার সকালে কুমিল্লা শহরের একটি মন্দিরে কুরআন অবমাননার কথিত অভিযোগ তুলে কয়েকটি মন্দিরে হামলা হয়। এর জেরে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ বাজারে লক্ষ্মীনারায়ণ জিওর আখড়া মন্দিরে হামলা ও ভাংচুর হয়। সে সময় হামলাকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়। পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে উত্তেজনাকর পরিস্থিতিতে শহরে বিজিবি মোতায়েন করা হয় পরে।

ওই সংঘর্ষে তিনজন বুধবার রাতে ও একজন বৃহস্পতিবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে মারা যান বলে পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি মো. আনোয়ার হোসেন জানান।

বৃহস্পতিবার বিকালে তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সাংবাদিকদের বলেন, “পুলিশের গুলিতে হাজীগঞ্জে চারজন মারা গেছেন। হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তিনজন বুধবার রাতে ও কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে একজন বৃহস্পতিবার সকালে মারা যান।”

নিহতরা হলেন- চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার সুন্দরপুর বাগডাঙা এলাকার সামছুর ছেলে টাইলস মিস্ত্রি বাবলু (৩৫), হাজীগঞ্জ পৌর এলাকার রান্ধুনী মুড়ার শুকু কমিশনার বাড়ির তাজুল ইসলামের ছেলে আল আমিন (১৮) ও সেকান্দর বেপারী বাড়ির মো. ফজলুর ছেলে হৃদয় (১৪) ও রান্ধুনীমুড়ার বাচ্চুর ছেলে গ্রামের শামীম (১৯)।

সংঘর্ষের ঘটনার পর হাজীগঞ্জ পৌর এলাকায় বুধবার রাত ১২টার পর থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি করেছে স্থানীয় প্রশাসন।

আরো পড়ুন : শ্বেতী রোগের কারণ, লক্ষ্মণ ও চিকিৎসা

আরও পড়ুন: বীর্যমনি ফল বা মিরছিদানার উপকারিতা

আরো পড়ুন : অর্শ গেজ পাইলস বা ফিস্টুলা রোগের চিকিৎসা

আরো পড়ুন :  নারী-পুরুষের যৌন দুর্বলতা এবং চিকিৎসা

126 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন