chandpurreport 61

ফরিদগঞ্জে নিত্যপণ্যের বাজার দর বৃদ্ধি, বাজার মনিটরিং জরুরী

ফরিদগঞ্জ সংবাদদাতা:
চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার ২২/২৩টি হাট-বাজারে নিত্য পণ্যের দাম লাগামহীন ভাবে বেড়ে চলছেই। বেশ কয়েকটি বাজার ঘুরে দেখা গেছে , ভোজ্য তেল, চিনি, আটা , ময়দা ও পেঁয়াজের দাম অসহনীয় মাত্রায় বেড়েছে। চালের দাম অনেকটাই স্থিতিশীল রয়েছে। কাঁচা শাকসবজীর দামও কিছুটা বেড়েছে তবে কাঁচা মরিছের দাম তুলনামূলক বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে। মুরগীর দামও অস্বাভাবিকহারে বেড়েছে।

বুধবার (১৩ অক্টোবর) উপজেলা সদরসহ চান্দ্রা ও রুপসা, গৃদকালিন্দিয়া, লতিফগঞ্জ, শোল্লা, মুন্সীর হাট, নয়াহাট, রামপুর , কালির বাজার , গাজীপুর বাজার ঘুরে দেখা গেছে, সয়াবিন ১৬০, সরিসার তেল ১৮০ , পেঁয়াজ ৬০,আদা ১৫০, ,আটা ৩৫/৩৬, ময়দা ২১ , চিনি ৮৫/৯০ ,মুগ ডাল ১৪০, বুটের ডার ৫০ কেজিতে বিক্রি করা হচ্ছে।

কাঁচা বাজারের মধ্যে মুরগীর দাম মাছের দামের তুলনায় অতিমাত্রায় বৃদ্ধি পেয়েছে। ককমুরগী ৩২০/৩০, বয়লার ১৬০, গররু গোশত ৬০০ কেজিতে বিক্রি ও ডিম (হালি) ৩৬/৪০ দরে বিক্রে হচ্ছে।

কাঁচা তরকারীর মধ্যে টমেটো ১৩০/৩৫,মূলা ৬০, পটল ৪০,৪৫, করলা ৬০, বেগুন ৬০/৬৫, ছড়া ৩৫/৪০,কাঁচা মরিচ ২০০ কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

সয়াবিন কেজি পিছু ৪০, আদা ৬০, পেঁয়াজ ২৭, ময়দা ১০/১২, আটা ২/৩ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে। অপর সকল পণ্যের বাজার দর বলাচলে অনেকটাই স্থিতিশীল রয়েছে।

নিত্য পণ্যের মধ্যে তেল, চিনি, আটা, ময়দা ও পেঁয়াজের দামে সাধরণ খেঁটে খাওয়া মানুষগুলো দিশেহারা হয়ে পড়েছে। নিম্ম ও মধ্যবৃত্ত শ্রেণির মানুষ নিদারুণ কষ্টে চলছে।

এ বিষয়ে ক্রেতা সাধারণের মধ্যে শরিফ মৃধ্যা, সফিক মুন্সী, রেজু মুন্সী, নাজিমউদ্দিন, মনির হোসেসহ অনেকেই দাবী করে জানান, টিসিবি নিত্য এ কয়েক প্রকার পণ্য ফরিদগঞ্জে বিক্রির ব্যবস্থা করলে বাজার দর নিয়ন্ত্রণ ও সাধারণের ক্রয় ক্ষমতার নাগালে রাখা সম্ভব হবে।

তারা আরও জানান, কালেভদ্রে টিসিবি আচমকা গাড়িতে পণ্য রেখে অল্প কয়েক জনের নিকট বিক্রি করে দৌঁড়ে কেটে পড়ে। তবে দির্ঘদিন যাবৎ তাও দৃশ্যমান হচ্ছেনা। ফলে বাজার দর নিয়ন্ত্রন সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে।

ফরিদগঞ্জে বাজার মনিটরিং ব্যবস্থা দৃশ্যমান না হওয়ায় মুদি দোকানে মূল্য তালিকা নেই বলইে চলে। যাদের রয়েছে তাও আবার হালফিল করা হচ্ছে না। উপজেলা প্রশাসনের বাজার মনিটরিং করার দাবী জানিয়েছেন সচেতন ক্রেতা সাধারণ। উপজেলা প্রশাসন দির্ঘদিন বাজার মনিটরিং না করায় সংকট তীব্র হচ্ছে।

আরও পড়ুন: বীর্যমনি ফল বা মিরছিদানার উপকারিতা

ফরিদগঞ্জ, রুপসা, কালিরবাজার, চান্দ্রা, গাজীপুর বাজারের মুদি দোকানীদের মধ্যে রহমত উল্যাহ, মাহাবুব, জাকির হোসেন, মিজানুর রহমান জানান, আমাদের বেশী দামে পণ্য কেনার কারণে আমরা কিছুটা বাড়তি দামেই বিক্রি করতে হচ্ছে। দোকান ভেদে একই পণ্যের বিভিন্ন দাম রাখার কারণ জানতে চাইলে, বলেন অগের কেনা ও পরের কেনায় ব্যবধান থাকায় সেটা হতে পারে।

আরো পড়ুন :  নারী-পুরুষের যৌন দুর্বলতা এবং চিকিৎসা

এ বিষয়ে জেলা মাকেটিং অফিসার মো. মিজানুর রহমান জানান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বললে, আমরা বাজর নিয়ন্ত্রণে ওনাদেরকে সহযোগীতা করে থাকি।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিউলী হরি জানান, বাজার দর মনিটরিং এ অভিযান অচিরেই পরিচালনা করা হবে। তাছাড়া অভিযান অব্যাহত থাকার কথাও জানান।

আরো পড়ুন : শ্বেতী রোগের কারণ, লক্ষ্মণ ও চিকিৎসা

107 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন