chandpurreport 54

সাদুল্লাপুর ইউপির আবুল বাশার বাবুল মেম্বার গ্রেফতার

মতলব উত্তর ব্যুরো :
মতলব উত্তর উপজেলার সাদুল্লাপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৭নং ওয়ার্ড মেম্বার আবুল বাশার ওরফে বাবুল হোসেনকে ওয়ারেন্টমুলে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। বুধবার তাকে চাঁদপুর আদালতে প্রেরণ করা হয়। আমিয়াপুর গ্রামের ইমাম হোসেনের মেয়ে মোসা. ফাতেমা বেগম বাদী হয়ে আদালতে মামলাটি দায়ের করেন। মামলা নং সিআর ৫৩/২৩।

জানা গেছে, বাদীর দাদা মৃত্যুকালে ২ ছেলে ১ স্ত্রী ও ৭ মেয়েকে রেখে গেছেন। বাদীর বাবা তার প্রথম ছেলে নারায়ণগঞ্জ থাকেন। বাদীর দাদার মৃত্যুর পর সাদুল্লাপুর ইউপি চেয়ারম্যানকে মিথ্যা তথ্য দিয়ে বাদীর পিতা ইমাম হোসেনের নাম না দিয়ে ওয়ারিশ সনদ তৈরি করে তার সকল সম্পত্তি আত্মসাৎ করার চেষ্টা করে। ভুয়া দলিল সৃজন করে।

পরবর্তীতে এসআর অফিসে তল্লাশী করিলে ভুয়া দলিল ধরা পড়ে। পরবর্তীতে ইমাম হোসেনের মেয়ে ফাতেমা বেগম বাদী হয়ে মৃত রাজ্জাক প্রধানের ছেলে আব্বাছ উদ্দিন, সাহাবুদ্দিন বেপারীর ছেলে আবুল বাশার ওরফে বাবুল মেম্বার, রাজ্জাক প্রধানের ছেলে জহির প্রধান, ফারুক, আরিফ, আতিক, মেয়ে আয়েশা ও নাউরী গ্রামের হামিদ খানের স্ত্রী রহিমা বেগম সহ ৮ জনকে আসামী করে ৪৭১, ৪৬৭, ৪৬৮, ৫০৬ ধারায় জাল-জালিয়াতির মামলা দায়ের করেন।

ফাতেমা বেগম বলেন, আমার পরিবারের সাথে জালিয়াতির করায় ৮জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করি। এ মামলার গ্রেফতারি পরোয়ানাভুক্ত আসামী আবুল বাশার বাবুল মেম্বার (বুধবার) পুলিশ আটক করে আদালতে পাঠান্ আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করে। সকল আসামীদের আটক করে আইনের আওতায় আনা হলে আমি ন্যায় বিচার পাবো।

ওসি মুহাম্মদ শাহজাহান কামাল বলেন, উক্ত মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা মুলে আসামী বাবুল মেম্বারকে গ্রেফতার বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। ভুয়া ওয়ারিশ সনদের ব্যাপারে কথা বলার জন্য সাদুল্লাপুর ইউপি চেয়ারম্যান লোকমান হোসেনকে মুঠোফোনে কল দিলে তিনি রিসিভ করেননি।

আরো পড়ুন : শ্বেতী রোগের কারণ, লক্ষ্মণ ও চিকিৎসা

আরো পড়ুন : যৌন রোগের কারণ ও প্রতিকার

আরো পড়ুন : ডায়াবেটিস প্রতিকার ও প্রতিরোধে শক্তিশালী ঔষধ

আরো পড়ুন : মেহ প্রমেহ ও প্রস্রাবে ক্ষয় রোগের কার্যকরী সমাধানসমূহ

আরো পড়ুন : গেজ, অশ্ব,পাইলসের সহজ চিকিৎসা

96 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন