Faridgonj ফরিদগঞ্জ

ফরিদগঞ্জে ব্রিক ফিল্ড ভাড়া দিয়ে জোর পূর্বক বেআইনী উচ্ছেদের পাঁয়তারা

নিজস্ব প্রতিনিধি:
চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার গল্লাক এমআই ব্রিক ফিল্ড ভাড়া দিয়ে জোরপূর্বক বেআইনী ইচ্ছেদের পাঁয়তারার অভিযোগ উঠেছে।

ঘটনার বিবরনে জানাযায়, ২৫ এপ্রিল ২০২০ সালে লিখিত চুপ্তির মাধ্যমে মেসার্স এমআই ব্রিক ফিল্ডের পক্ষে মো.মহসিন হোসেন ও মো. ইমাম হোসেন, পিতা- মৃত আলী আকবর সাং চোরাঙ্গা পো: শোল্লাবাজার, উপজেলা- ফরিদগঞ্জ,জেলা- চাঁদপুর।

এর সাথে কাজী এ এসএম বজলুর রহমান লিটন, পিতা-মৃত মোখলেছুর রহমান, গ্রাম- হোগলী, পো: সিংহেরগাঁও, উপজেলা-ফরিদগঞ্জ, জেলা-চাঁদপুর। বাৎসরিক ২০ লাখ টাকা ভাড়ার ভিত্তিতে ৫ বছরের জন্য চুপ্তিপত্র স্বাক্ষরিত হয় এবং উক্ত চুপ্তিপত্র এফিডেভিট করা হয়। যার রেজি. নং ১৩০১। চুপ্তিপত্রের ৫ নং শর্তে উল্লেখ ছিল, ফিল্ড ভাড়া নেওয়ার পর ফিল্ডের সকল প্রকার ভ্যাট ও টেক্স বা অফিসের অন্যান্য খরচ আপনি ভাড়া গ্রহীতা প্রদান করবেন।

ফিল্ড ভাড়া নেওয়ার পূর্বেও ভ্যাট , টেক্সসহ অন্যান্য সকল প্রকার বকেয়া লেন-দেন ফিল্ড বাড়া দাতা দ্বয় বহন করতে বাধ্য থাকিবে। ভাড়া গ্রহীতার কোন প্রকার দ্বায় থাকবে না। প্রতি বছরের ভাড়া বাংলা ০১ থেকে ৩০আষাঢ় এর মধ্যে পরিশোধ করার কথা থাকলেও ভাড়া দাতদ্বয় বিভিন্ন কুটকৌশলে তাদের পূর্বেও দেনা দারদের হাজির করে বিভিন্ন সমস্যার সৃষ্টি করে। ৩জুলাই ২০২১ ভাড়া দাতাদ্বয় অস্ত্র-সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে জোর পূর্বক দখল করে নেয়, সন্ত্রাসী হামলায় ভাড়াটিয়ার ভাইসহ কয়েকজন আহত হয়ে চাঁদপুর সদর এবং গুরুতর আহত হওয়ার কারণে ঢাকায় চিকিৎসা নিতে হয়। উক্ত হামলার বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানায় অভিযোগ দাখিল করা হয়, যাহার জিআর নং ২২৯/২১।

১২.০৪.২০২১ই তারিখ উল্লেখ করে ভাড়া দাতদ্বয় ভুয়া পাওয়ার অব এ্যার্টানি তৈরিকরে। এমনকি ভাড়াটিয়া এ এসএসবজলুর রহমান এর নাম ব্যাবহার করে ২৮ জুলাই ২০২১ ষ্টাম্প ক্রয় দেখিয়ে ১১ জুলাই ২০২১ একটি আপোষ নামা তেরি করো । উক্ত আপোষ নামায় ভাড়াটিয়ার কোন সাক্ষর নেই ।

ব্রিক ফিল্ড ভায়াটিয়া এসএম বজলুর রহমান লিটন জানায়, আমার সাথে চুক্তি মোতাবেক কাজ না করায় আমি আইনের আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়েছি। তাছাড়া তিনি আরোও জানান, আমার প্রায় ৫/৬ লাখ ইটা এখনও ফিল্ডে রয়েছে। আমরা ইটাগুলেঅ তার এখন দিচ্ছে না। তাছাড়া উশৃংখল কিছু সন্ত্রাসী এনে ফিল্ড চলাকালিন আমাদের উপর তারা হামলা চালিয়েছিল। আমি আমার ন্যায্য পাওনা থেকে বিরত হবো। আমার সকল পাওনা ফেরৎ চাই।

এ বিষয়ে বর্তমানে ফিল্ডের পরিচালক মো: ইমাম হোসেনের সাখে মোবাইল ফোনের যোগাযোগ করলে তিনি ব্যস্ত আছেন বলে জানিয়ে দেন। যার প্রেক্ষিতে সুস্পষ্ট বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

359 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন