chandpurreport 449

হাইমচরে গৃহবধূর অশ্লীলতার প্রতিবাদ করায় মিথ্যা মামলা

সাহেদ হোসেন দিপু :

হাইমচর উপজেলার ২নং আলগী উত্তর ইউনিয়নের মহজুমপুর গ্রামের সৈয়দ আহাম্মেদ মিজির স্ত্রী ফাতেমা বেগম এর অনৈতিক কার্যকালাপ এবং কুকর্মের প্রতিবাদ করায় প্রতিবেশী মোক্তার মিজিকে মিথ্যা মামলা দিয়ে আটক করার প্রতিবাদে এবং তার মুক্তির দাবীসহ দেহব্যবসায়ী পতিতা ফাতেমা বেগম এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবী জানিয়ে মানববন্ধন করেছে এলাকার মসজিদ কমিটিসহ স্থানীয় লোকজন।

বুধবার সকাল ১০টায় হাইমচর উপজেলা পরিষদ সম্মুখে নারী পুরুষের অংশগ্রহনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধন শেষে অভিযুক্ত ফাতেমা বেগমের বিরুদ্ধে ১৩১ জন নারী ও পুরুষের স্বাক্ষরীত একটি অভিযোগপত্র হাইমচর থানা অফিসার ইনচার্জ এর নিকট জমা দেন।

মানববন্ধনে স্থানীয় বাসিন্দা মরিয়ম বেগম বলেন, আমার পাশ্ববর্তী বাড়ির ফাতেমা বেগম দীর্ঘ ১৫ বছর যাবত বিভিন্ন ধরনের অনৈতিক কার্যকলাপ এবং তার ঘরে বহিরাগত পুরুষ লোকজন নিয়ে দিন রাত আড্ডা সহ বিভিন্ন কুকর্ম করে আসতেছে। আমরা বাড়ির মহিলারা তাকে অনেক বুঝিয়েছিলাম এই খারাপ পথ থেকে ফিরে আসার জন্য।

তার এই অনৈতিক কার্যকলাপের কারনে আমাদের ছেলে মেয়ে দের নিয়ে প্রশ্নবিদ্ধ হই। আমার স্বামী সহ বাড়ির লোকজন তার এই কুকর্মের প্রতিবাদ করায় ফাতেমা বেগম নিজের হাত নিজে কেটে চাঁদপুর আদালতে বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন।

ঐ মামলায় আমার প্রতিবেশী মোক্তার মিজিকে পুলিশ আটক করে। আমরা এলাকা বাসী একত্রিত হয়ে মোক্তার মিজির মুক্তি সহ অনৈতিক কাজে লিপ্ত থাকা ফাতেমা বেগম এর বিরুদ্ধে আইনআনুগ ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য প্রশাসনের নিকট আবেদন জানাচ্ছি।

মোঃ মজিবুর রহমান খোকন মানববন্ধনে তার বক্তব্যে বলেন, ফাতেমা বেগম ও তার মেয়ে রুবি আক্তার অবৈধ ব্যবসার সাথে জড়িত রয়েছে। আমাদের স্থানীয় লোকজনসহ সমাজের মুরুব্বিদের কাছে দীর্ঘ দিন যাবত বিভিন্ন অভিযোগ দিয়ে আসছে এলাকাবাসী।

স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিরা দরবার সাল্লীসি করেও এই খারাপ মহিলাটিকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেনি। গত ১৩ নভেম্বর হাইমচর থানায় উপস্থিত হয়ে ফাতেমা বেগম এর বিরুদ্ধে মোক্তার মিজি একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযুক্ত ফাতেমা বেগমের বাড়িতে পুলিশ তদন্ত গেলে ওনি অসৎ উদ্দেশ্যে নিজের হাত নিজে কেটে চাঁদপুর আদালতে মোক্তার মিজি সহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। ঐ মামলায় মোক্তার মিজিকে পুলিশ গ্রেফতার করেন। আমরা মোক্তার মিজি নিঃসর্ত মুক্তি সহ এই খারাপ মহিলার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য এলাকাবাসী সহ মানববন্ধন অংশ গ্রহন করেছি।

মানববন্ধনে আরো কয়েক জন বক্তা বলেন, ফাতেমা বেগম ও তার মেয়ে এলাকার পরিবেশ নষ্ট সহ এলাকার যুব সমাজকে ধংশের দিকে ধাবিত করছে আমরা মহজুমপুর বায়তুল নূর মিজি বাড়ি জামে মসজিদ কমিটি ও এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিদের সাথে নিয়ে আমার সমাজের শান্তি শৃংখলা এবং পরিবেশ রক্ষর্থে ফাতেমা বেগম ও তার মেয়ে এলাকায়, সমাজে আর কোনো কুকর্ম, অবৈধ শারীরিক ব্যবস্থা না করতে পারে সে জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করতে হাইমচর থানায় অভিযোগ করেন এবং হাইমচর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মহোদয় কে বিষয়টি অবহিত করেন এলাকাবাসী।

মানববন্ধন উপস্থিত ছিলেন সেকান্তর মিজি, মুনচুর আহমেদ ভূইয়া, শাহজান খলিফা, হোসাইন, অলিউল্লাহ, বাচ্চু মির, আব্দুর ছাত্তার ভূইয়া, তারেক গাজি, হাজী মো. রুহুল আমিন গাজি, আহছান ছৈয়ালসহ স্থানীয় অসংখ্য নারি পুরুষ।

আরো পড়ুন : শ্বেতী রোগের কারণ, লক্ষ্মণ ও চিকিৎসা

আরো পড়ুন : মেহ-প্রমেহ ও প্রস্রাবে ক্ষয় রোগের প্রতিকার

আরো পড়ুন : অর্শ গেজ পাইলস বা ফিস্টুলা রোগের চিকিৎসা

আরো পড়ুন : ডায়াবেটিস প্রতিকারে শক্তিশালী ভেষজ ঔষধ

আরো পড়ুন : যৌন রোগের শতভাগ কার্যকরী ঔষধ

আরো পড়ুন :  নারী-পুরুষের যৌন দুর্বলতা এবং চিকিৎসা

225 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন