রিপোর্ট 262

মরহুম আঃ করিম পাটওয়ারীর ২২ তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক :: চাঁদপুরের সর্বজন শ্রদ্ধেয় সাবেক গণপরিষদ সদস্য ও চাঁদপুর পৌর সভার সফল চেয়ারম্যান, প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা, বীরমুক্তিযােদ্ধা মরহুম আবদুল করিম পাটওয়ারীর ২২ তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২১ জানুয়ারি বাদ আসর শহরের তালতলাস্থ পাটওয়ারী বাড়ি জামে মসজিদে এ মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌরসভার সাবেক মেয়র নাছির উদ্দিন আহমেদ, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ওচমান গণি পাটওয়ারী।

চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মরহুম আব্দুল করিম পাটটওয়ারীর ছেলে বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু নঈম পাটওয়ারী দুলালের সঞ্চালনায় এ সময় অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. জহিরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটওয়ারী, অ্যাড. মজিবুর রহমান ভূঁইয়া, চাঁদপুর জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট আহসান হাবীব, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. আবদুল্লাহ আল নোমান, সাবেক সভাপতি অ্যাড.সেলিম আকবর, জেলা আওয়ামীলগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক নুরুল ইসলাম মিয়াজী, চাঁদপুর জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কালু ভূঁইয়া, জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি মাহবুবুর রহমান, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রশিদ সর্দার, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস মোরশেদ, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ইফতেখারুল আলম মাসুমসহ চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

বক্তারা বলেন, মরহুম আব্দুল করিম পাটোয়ারী সর্বজনশ্রদ্ধেয় একজন মানুষ। মহান স্বাধীনতা সংগ্রামের একজন অন্যতম সংগঠক। তিনি অনেক গুণে গুণান্বিত একজন মানুষ ছিলেন। উনার সম্পর্কে বলতে গেলে অনেক কথাই বলা যায়।

তিনি তৃণমূল থেকে উঠে আসা একজন নেতা। জীবদ্দশায় তিনি সৎ ও আর্দশবান একজন সহজ সরল মানুষ ছিলেন। খুব সহজেই মানুষের সাথে মিশে যেতেন মানুষকে আপন করে নিতেন। সমাজে মানুষের সেবা করতে গিয়ে তিনি কখনো কোনো কার্পণ্যতা করেননি। সবকিছু মিলিয়ে তিনি একজন সৎ ও আর্দশবান রাজনীতিবিদ ব্যক্তি ছিলেন।

তিনি বেঁচে নেই কিন্তু তার আর্দশ, সততা আমাদের মাঝে বেঁচে আছে। তিনি বেঁচে থাকতে যেভাবে ভালো কাজ করে গেছেন, আমরাও যেনো তার মতো ভালো কাজ করি। তাহলে আমরাও মারা যাবার পরেও ভালো কাজের জন্য তার মতো মানুষের মনে বেঁচে থাকবো।

মিলাদে দোয়া ও মুনাজাত পরিচালনা করেন পাটোয়ারী বাড়ী জামে মসজিদের খতিব মাওলানা আব্দুস সালাম। মিলাদ শেষে মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনায় কবর জিয়ারত উপস্থিত সকলে।

 20 সর্বমোট পড়েছেন,  2 আজ পড়েছেন

শেয়ার করুন