রিপোর্ট 271

হাইমচরে সরকারি মহৎ কাজকে বাধাগ্রস্ত করতে মৎস্য অফিসারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র

হাইমচর প্রতিনিধি :

হাইমচরে সরকারি মহৎ কাজকে বাধাগ্রস্থ্য করতে উপজেলা মৎস্য অফিসারের বিরুদ্ধে কঠোর ষড়যন্ত্র করছে একটি মহল।

হাইমচরে বাচ্চু মোল্লা নামক ব্যক্তির মৃত্যুতে উপজেলা মৎস্য অফিসার মো. মিজানুর রহমানকে ফাঁসানোর চেষ্টাসহ সরকারি কাজকে বিতর্কিত করতে উঠে পড়ে লেগেছে একটি কুচক্রি মহল।

বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা মৎস্য অফিস, থানা পুলিশ ও কোষ্টগার্ডসহ হাইমচর বাজার মাছ ঘাটে যৌথ অভিযান চালায়। এসময় ৫০০ কেজি জাটকা মাছ জব্দ করে এতিমদের মাঝে বিতরণ করা হয়। ঐ দিনই চরভৈরবী এলাকার বাচ্চু মোল্লা মাছ ক্রয় করতে মাছ ঘাটে এসে অসুস্থ্য হয়ে পড়েন।

অসুস্থ্য ব্যক্তিকে প্রথমে হাইমচর স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সেখান থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজে ভর্তি করানো হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার সন্ধ্যায় তিনি মারা যান। তার মৃত্যুকে ব্যবহার করে মৎস্য অফিসারকে জড়িয়ে ষড়যন্ত্র করছে এক শ্রেনীর অসাধু মৎস্য ব্যবসায়ীসহ কুচক্রিমহল। মৃত্যু সনদে বাচ্চু মোল্লা করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃতুবরন করেন উল্লেখ রয়েছে।

হাইমচর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবদুল মান্নান বলেন, আমরা এবং কোস্ট সহ প্রশাসনিক কর্মকতারা টলার থেকে নামার সাথে সাথেই ভয়ে জাটকা ক্রয় এবং বিক্রয় কারীরা ছোটাছুটি করেন। পরে আমাকে মৎস্য অফিসার বললেন যে জাটকা মাছের একটি একটি গোডাউন পাওয়া গেছে তারপরে আমি এবং উনি একসাথে কয়েকটি ঘরে অভিযান চালাই এবং কয়েক শত কেজি জাটকা জব্দ করি। পরে ২০ মিটার দূরত্ব থেকে দেখতে পাই কয়েকজন মহিলা একজন পুরুষকে নিয়ে একটি বাড়ির উঠানে বসে রয়েছে। পরে ঐ বাড়ি থেকে বেরহয়ে আসা একটি ১৮ বছর বয়সী বালককে জিজ্ঞেস করি যে ঐ লোকটির কি হয়েছে পরে বালকটি বলে উনি অসুস্থ হয়ে পড়েছে তারপরে আমি ওই বলিকটিকে বলি দ্রুত হসপিটালে নেওয়ার জন্য।

এ ব্যাপারে হাইমচর উপজেলা সিনিয়র( অতিরিক্ত দায়িত্ব) মৎস্য অফিসার মোঃ মিজানুর রহমান জানান ঐদিন আমরা থাকালীন এ ধরনের কোন ঘটনা ঘটে নি। আমার হাতে কোন লাঠি ছিলনা। আমার সাথে হাইমচর থানার এস আই মোঃ আঃ মান্নান ও কোষ্টগার্ঢ ছিল। তারা কাউকে আঘাত করতে দেখিনি । চলতি কম্বিং অপারেশন ও আসন্ন মার্চ এপ্রিল জাটকা সংরক্ষণ অভিযান বাধাগ্রস্ত করতেই আমার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ আনা হয়েছে।

 15 সর্বমোট পড়েছেন,  1 আজ পড়েছেন

শেয়ার করুন