রিপোর্ট 331

চাঁদপুরে ট্রলার ডুবি; ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, চাঁদপুর।

চাঁদপুরের ডাকাতিয়া নদীর মমিনপুর এলাকায় ট্রলারডুবিতে ৫ জন নিহতের ঘটনায় বাল্কহেডের সুকানী ও মালিকসহ ৬ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেছেন নিহত শ্রমিক আউয়ালের ভাতিজা কাউছার।

সোমবার (৩১ জানুয়ারি) রাতে চাঁদপুর সদর মডেল থানায় কাউছার বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলার আসামিরা হলেন, ইকবাল হোসেন-১ বাল্কহেড এর সুকানী বাহার, মালিক ইকবাল হোসেন, শ্রমিক জাবেদ, আবুল বাশার, ইউনুস, দিদার। এদের মধ্যে সুকানী বাহার ও মালিক ইকবাল হোসেন পলাতক রয়েছেন। আর শ্রমিক জাবেদ, আবুল বাশার, ইউনুস, দিদারকে ঘটনার পরপর চাঁদপুর নৌ থানা পুলিশ বাল্কহেড থেকে আটক করেন।

চাঁদপুর নৌ থানার ওসি মো. মুজাহিদুল ইসলাম জানান, বাল্কহেড ও ট্রলারের সংঘর্ষে ৫ জন নিহতের ঘটনায় একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে। নিহত শ্রমিক আউয়ালের ভাতিজা কাউছার হত্যা মামলাটি দায়ের করেন। আসামি ৬ জনের মধ্যে ৪ জনকে আটক করা হয়েছে, বাকি ২ জন পলাতক রয়েছে।

প্রসঙ্গত, সোমবার সকাল ৭টার দিকে চাঁদপুর সদর উপজেলার বাগাদী ইউনিয়নের মমিনপুর গ্রাম এলাকায় ডাকাতিয়া নদীতে বালুবাহি বাল্কহেডের ধাক্কায় মাটিবাহী অপর একটি ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটে। এতে ট্রলারে থাকা মাঝিসহ ১১ জন শ্রমিকের মধ্যে ৬জন সাঁতরে পাড়ে উঠে পারলেও ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

নিহত শ্রমিকরা হলেন- কুমিল্লা জেলার মুরাদ নগর থানার বহরা গ্রামের মোবারক হোসেন, একই এলাকার মাদবপুর গ্রামের আল আমিন, তিতাস থানার ধুলারাসপুর এলাকার চাঁনপুর গ্রামের মো. নাছির উদ্দিন, ট্রলারের মাঝি মুরাদনগর থানার রঘুনাথপুরের মো. আউয়াল ও কুমিল্লা তিতাস থানার রঘুনাথপুর গ্রামের মো. নজরুল ইসলাম কালা।

ঘটনার দিন ইকবাল হোসেন-১ বাল্কহেডের শ্রমিক মো. জাবেদ, আবুল বাশার, মো. ইউনুস ও দিদারকে আটক করেছে চাঁদপুর নৌ থানা পুলিশ।

 17 সর্বমোট পড়েছেন,  1 আজ পড়েছেন

শেয়ার করুন