rape women love logo

ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বার সাত মাস পর মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রকাশিত: ০৯:৪৭ পিএম, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২২
বরিশালের হিজলায় স্বামী পরিত্যক্ত এক নারীকে (২৮) ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষণের ফলে ওই নারী অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর জানাজানি হলে এলাকা ছেড়েছেন অভিযুক্ত সহিদ বিশ্বাস (৫০) ।

এ ঘটনায় শনিবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ৯টার দিকে ভুক্তোভোগী নারী সহিদ বিশ্বাসের নামে থানায় ধর্ষণ মামলা করেছেন। সহিদ বিশ্বাস উপজেলার গুয়াবাড়িয়া ইউনয়নের ৩নং ওয়ার্ডের কোলচরের গুচ্ছ গ্রামের সোনাবালি বিশ্বাসের ছেলে। তিনি চার সন্তানের জনক।

ভুক্তোভোগী ওই নারী জানান, ১২ বছর আগে দুই সস্তান রেখে স্বামী ছেড়ে চলে যান। এরপর বিভিন্ন বাড়িতে কাজ করে দিন চলছিল। স্বামী না থাকায় সহিদ বিশ্বাস দীর্ঘদিন ধরে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। সাত মাস আগে একদিন রাতে বাথরুমে যেতে ঘর থেকে বের হলে ওৎ পেতে থাকা সহিদ বিশ্বাস তাকে ধর্ষণ করে। লোকলজ্জার ভয়ে বিষয়টি গোপন রাখেন। এখন অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে বিষয়টি সহিদ বিশ্বাসকে জানানো হয়। সহিদ বিশ্বাস বিষয়টি কাউকে জানালে ক্ষতি হবে বলে হুমকি দেন।

ভুক্তোভোগী ওই নারী আরও বলেন, সম্প্রতি শারীরিক পরিবর্তন দেখে প্রতিবেশীদের সন্দেহ হয়। বিষয়টি জানাজানি হয়ে যায়। এরপর লজ্জায় বাবার বাড়ি চলে আসি।

গুয়াবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যাপক সাজাহান তালুকদার জানান, বিষয়টি জানার পর ওই নারীকে থানায় মামলা করার পরামর্শ দিয়েছি।

এদিকে সহিদ বিশ্বাস আত্মগোপন করায় তার বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি। তবে তার স্ত্রী রানু বেগম জানান, মেয়েটির চরিত্র ভালো নয়। হয়তো অন্য কোথায় অপকর্ম করে তার স্বামীর ওপর দোষ চাপাচ্ছে। তবে স্বামী এ ধরনের কাজ করলে বিচার হওয়া উচিত।

হিজলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. ইউনুস মিয়া জানান, ওই নারী বাদী হয়ে রাতে সহিদ বিশ্বাসের নামে মামলা করেছে। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 32 সর্বমোট পড়েছেন,  1 আজ পড়েছেন

শেয়ার করুন