যমজ ভাইয়ের সঙ্গে যমজ বোনের বিয়ে, বিয়েবাড়িতে ভিড়

জেলা প্রতিনিধি. পাবনা :: ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ০৯:৪০ পিএম

পাবনার ঈশ্বরদীতে যমজ দুই ভাইয়ের সঙ্গে যমজ দুই বোনের বিয়ে হয়েছে। ব্যতিক্রমী এই বিয়ের আয়োজন দেখতে বিয়েবাড়িতে উৎসুক মানুষের ভিড় জমে যায়। শনিবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে শহরের দরিনারিচা এলাকায় যমজ কনের বাবার বাড়িতে এই বিয়ের আয়োজন করা হয়। কয়েকশ অতিথির সামনে সাড়ে তিন লাখ টাকা করে দেনমোহরে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়।

বররা হলেন- নওগাঁর মহাদেবপুরের সেকেন্দার আলী মন্ডলের ছেলে সেলিম মাহমুদ ও সুলতান মাহমুদ। আর কনেরা হলেন- ঈশ্বরদী শহরের কাপড় ব্যবসায়ী মো. কুদ্দুস খানের মেয়ে মোছা. সাদিয়া ও মোছা. নাদিয়া। সেলিম ও সুলতান একটি বেসরকারি কোম্পানিতে কর্মরত এবং সাদিয়া ও নাদিয়া একটি কলেজের শিক্ষার্থী।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, যমজ বোনের বিয়েকে কেন্দ্র করে জমকালোভাবে আয়োজন করা হয়। বিয়েবাড়িতে চলে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। বর-কনে উভয়ই যমজ হওয়ায় তাদের দেখতে বিয়েবাড়িতে মানুষের ঢল নামে। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় তাদের গায়ে হলুদ অনুষ্ঠান হয়।

কনের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, কনের বাবা কুদ্দুস আলী ও মা শিল্পী খাতুনের ইচ্ছে ছিল যমজ মেয়েদের একসঙ্গে, এক অনুষ্ঠানে বিয়ে দেবেন। কিন্তু একসঙ্গে যমজ ছেলে পেয়ে যাবেন, তেমনটাও তারা ভাবেননি। এমন যমজ বর পাওয়ায় তারা অনেক খুশি।

Hakim Mizanur Rahman New ad

কনের বাবা আব্দুল কুদ্দুস বলেন, সম্প্রতি আমার কাপড়ের দোকানে একজন ক্রেতা আসেন। এ সময় যমজ দুই মেয়েকে দেখে তার ভীষণ পছন্দ হয়। পরে ওই ক্রেতার মাধ্যমে যমজ পাত্রের সন্ধান পাই। খোঁজখবর নিয়ে পাত্রের পরিবারের কাছে প্রস্তাব পাঠানো হয়। একপর্যায়ে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে বিয়ের তারিখ ঠিক হয়।

বরের বাবা সেকেন্দার আলী জানান, বিয়ের প্রস্তাব পাওয়ার পরপরই তারা খুশির সঙ্গে তা গ্রহণ করেন। প্রথমে ছেলের মা শুনেই রাজি হয়ে যান। ছেলেদের জানালে তারাও সম্মতি দেন। এরপর উভয়পক্ষ আলোচনা করে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন তারা।

 52 সর্বমোট পড়েছেন,  1 আজ পড়েছেন

শেয়ার করুন