পেটা

প্রাইভেট পড়ানো শেষে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা, শিক্ষককে জুতাপেটা

জেলা প্রতিনিধি গোপালগঞ্জ : প্রকাশিত: ১০:০৩ পিএম, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে বসুদেব শীল নামে এক শিক্ষককে জুতাপেটা করেছেন নারীরা।

রোববার (১৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে উপজেলার বান্দল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বসুদেব শীল উপজেলার বান্দল গ্রামের যতীন শীলের ছেলে ও কোটালীপাড়া পাবলিক ইনস্টিটিউশনের গণিতের শিক্ষক।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কোটালীপাড়া পাবলিক ইনস্টিটিউশনের ষষ্ঠ শ্রেণির কয়েকজন ছাত্রীকে শিক্ষক বসুদেব শীল তার বাড়িতে বসে প্রাইভেট পড়ান। ঘটনার দিন পড়া শেষে সব ছাত্রীকে ছুটি দিয়ে একজনকে রেখে তাকে ধর্ষণচেষ্টা করেন। বিষয়টি ওই ছাত্রী তার মাকে গিয়ে জানায়। ওই ছাত্রীর মা এলাকার নারীদের সঙ্গে এনে শিক্ষক বসুদেব শীলকে জুতাপেটা করেন।

ভুক্তভোগী ছাত্রী বলে, ‘শিক্ষক প্রতিদিন সবাইকে ছুটি দিয়ে আমার শরীরে হাত দিতেন। ঘটনার দিন তিনি আমাকে জড়িয়ে ধরে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। আমি দৌড়ে বাড়িতে গিয়ে ঘটনাটি মাকে জানাই।’

ওই ছাত্রীর মা বলেন, ‘শিক্ষক বসুদেব যে ঘটনাটি ঘটিয়েছে আমি তার উপযুক্ত শাস্তি চাই। সে যেন ভবিষ্যতে আর এ ধরনের কাজ করতে না পারে।’

এ বিষয়ে জানার জন্য শিক্ষক বসুদেব শীলের বাড়িতে গেলেও তাকে পাওয়া যায়নি। তার মোবাইল নম্বরটিও বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মাহবুবুর রহমান বলেন, বিষয়টি সত্য হলে শিক্ষক বসুদেব শীলের বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

কোটালীপাড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. জাকারিয়া বলেন, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 76 সর্বমোট পড়েছেন,  1 আজ পড়েছেন

শেয়ার করুন