রিপোর্ট 385

ফরিদগঞ্জে পুকুরে জাল ফেলা নিয়ে দফায় দফায় সংঘর্ষে গুরুতর আহত ৮

ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে উপজেলার গোবিন্দপুর উত্তর ইউনিয়নে চির্কাচাঁদপুর গ্রামে পুকুরে জাল ফেলা নিয়ে দফায় দফায় সংঘর্ষে ৮জন গুরুতর আহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

জানা গেছে, গোবিন্দপুর উত্তর ইউনিয়নের চির্কাচাঁদপুর গ্রামের বেপারি বাড়ির মৃত মমতাজ উদ্দিন বেপারীর ছেলে সফিক বেপারীর সাথে রফিকুল ইসলাম গংদের সাথে জমি নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত বিরোধ চলছে। বিজ্ঞ আদালতে স্থিতি অবস্থা থাকা সত্বেও ৬ ফেব্রুয়ারি ভোরে পুকুরে গোপনে জাল দিতে যায় প্রতিপক্ষরা ফজরের নামাজ পড়তে উঠে দেখে সফিক এসময় তিনি বাঁধা দিলে তার উপরে দলবল নিয়ে হামলা চালিয় রফিকুল ইসলাম গংরা তার শিশু সন্তানসহ ৮ জনকে গুরুতর আহত করে এবং ঘরবাড়ি ভাঙচুর করে। দেশীয় অস্ত্র দিয়ে হামলা চালায়।

সফিক জানান,আমাদের পৈত্রিক সম্পত্তি তে দেশ স্বাধীনের পর থেকেই ঘর দরজা করে বসবাস করে আসছি। সমপরিমাণ অংশীদার হওয়ার শর্তে ও তারা জবর দখল করার চেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে। তিনি আরো বলেন হামলার সময় আমার স্ত্রীর গলায় থাকা এক ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন যার আনুমানিক বাজার মূল্য ৬৫ হাজার টাকা,নগদ৩৫ হাজার,ও ঘর দরজা ভেঙ্গে আনুমানিক ৫০ টাকার ক্ষতি সাধন করেছে।

পরবর্তীতে থানায় অভিযোগ করার কারণে ৮জানুয়ারী মঙ্গলবার রাতে পুনরায় হামলা চালায়। এতে আমার বোন সেলিনা বেগম (৩৫) রক্তাক্ত জখম হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে। , জমি নিয়ে বিরোধ থাকার কারণে আমাদেরকে ঘরে এসে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে একাধিকবার হামলা চালিয়েছে। একই বাড়ীর নজরুল ইসলাম, স্বপন, সুফিয়ানসহ অন্যরা।

আবু সুফিয়ান জানান, পূর্বের মারামারি বিষয়ে অবগত থাকলেও মঙ্গলবার রাতের ঘটনায় নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারছিনা।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মোহাম্মদ আব্দুস সাত্তার জানান এই বাড়িতে ৩০ বছরের পুরনো ঝামেলা নিরসনের জন্য বহুবার চেষ্টা করেছি। সমাধান করা সম্ভব হয়নি।

অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা ফরিদগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক এসআই আনোয়ার বলেন মারামারির ঘটনায় অভিযোগের তদন্ত চলমান রয়েছে তদন্তপূর্বক পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এবং উভয়পক্ষকে স্থিতি অবস্থায় থাকার নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।

 28 সর্বমোট পড়েছেন,  1 আজ পড়েছেন

শেয়ার করুন