রিপোর্ট 23

মতলবে স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে গলা কেটে হত্যা

নিউজ ডেস্ক :

চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলার নারায়ণপুরে অমর সরকার (৩৭) নামে এক স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে নিজ বাড়ির উঠানে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। ২১ ফেব্রুয়ারী দিনগত রাত আনুমানিক ১২ টা থেকে ৩ টার মধ্যে সারপাড় দাস বাড়িতে এ খুনের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে মতলব দক্ষিণ থানা পুলিশ এবং পুলিশ ব্যুরো অব ইনভিস্টিগেশন (পিবিআই) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার দোকানের কর্মচারী অনিককে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত অমর সরকার উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের ঠেটালিয়া গ্রামের রবি ভক্তের ছোট ছেলে। প্রায় ৭ বছর ধরে তিনি সারপাড় এলাকায় বাড়ি করে স্থায়ীভাবে বসবাস করে আসছেন। তিন ভাই বোনের মধ্যে সবার ছোট অমর সরকার প্রায় ২০ বছর যাবৎ নারায়ণপুর বাজারে স্বর্ণের ব্যবসা করে আসছেন। দাম্পত্যজীবনে জীবনে তিনি আড়াই বছরের মেয়ে এবং দেড় বছরের এক ছেলে সস্তানের জনক।

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, ঘটনার দিন রাত ৯ টার দিকে দোকানের কর্মচারী অনিককে সাথে নিয়ে ব্যবসায়িক কাজে মতলব বাজারে যায়। সেখান থেকে মতলবেই তার বোনের বাড়িতে যায় বলে তার বোন মাধুবী ভক্ত জানান। বোনের বাড়ি থেকে রাত ১১ টার সময় কর্মচারীকে সাথে নিয়ে নারায়ণপুর চলে আসেন। এরপরে আর বাড়ি ফিরেন নি। পরে রাত আনুমানিক আড়াইটার দিকে কর্মচারী অনিক ঘরের দরজায় নক করে পরিবারের লোকজনকে অমর সরকারের নিহতের ঘটনা জানায়।

অমর সরকারের পিতা রবি ভক্ত জানান, প্রতিদিনের মতো আমি আমার ছেলের জন্য রাতে অপেক্ষা করতে থাকি। সে রাত ১০টা থেকে ১১ টার মধ্যেই বাড়িতে ফিরে আসে। কিন্তু ঘটনার দিন রাত গভীর হলে ছেলে বাড়িতে না আসায় আমি অস্থির হয়ে যাই। আমি আমার বড় ছেলে জীবন ভক্তকে বলি অমর কেন বাড়িতে আসে না সে জন্য ফোন করতে বলি। আমার বড় ছেলে জীবন ভক্ত জানায়, তার সাথে অমরের কথা হয়েছে সে আসবে।

অমর সরকারের স্ত্রী প্রিয়াংকা সরকার জানান, ঘটনার ৩-৪ দিন আগে আমি আমার বাবার বাড়িতে যাই। ঘটনার আগের দিন অমরের সাথে আমার ফোনে কথা হয়েছে। ঘটনার দিন আমি মোবাইলে কল দিয়েছিলাম। কিন্তু কল ধরে নাই।

এ বিষয়ে মতলব দক্ষিণ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মিয়া জানান, আমরা ভোরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসি। খুনিরা নিহত ব্যক্তিকে ধারালো ছুড়ি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করেছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য চাঁদপুর মর্গে পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও পুলিশ ও পিবিআই’র পক্ষ থেকে তদন্ত চলছে।

 72 সর্বমোট পড়েছেন,  1 আজ পড়েছেন

শেয়ার করুন