রিপোর্ট 11

মতলব উত্তরের ছোট মরাধনে কবরের উপর মসজিদ ও বাথরুম নির্মানের অভিযোগ

সফিকুল ইসলাম রানা :

মতলব উত্তর উপজেলার ছেংগারচর পৌরসভার ছোট মরাধন গ্রামে মসজিদ নির্মাণ ও মসজিদের বাথরুম নির্মানের অভিযোগ উঠেছে। সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, প্রায় ১০ বছর পূর্বে ছোট মরাদন গ্রামের মৃত আবুল হোসেন ও তার ভাই মুকবুল হোসেন ৬ শতাংশ জমি মসজিদের নামে ওয়াকফ করে দেয়। কিন্তু ঐ ৬ শতাংশ জমির উপর দাতাদের পূর্ব পুরুষদের কবর থাকায় ঐ স্থানটি খালি রাখার কথা ছিল।

কিন্তু মসজিদ কমিটির বর্তমান লোকজন সেই কথা ভঙ্গ করে সে স্থানে মসজিদের দ্বিতীয় তলার সিড়ি, হুজুরের থাকার রুম ও বাথরুমের হাউজ নির্মান করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শী রফিকুল ইসলাম বলেন, যেখানে মসজিদের ইমাম থাকার কক্ষ তৈরি করা হয়েছে তার নিচে বাথরুমের হাউজ করা হয়েছে, সেখানে ৭ টি কবর ছিল। যখন নির্মাণ কাজ করতে মাটি খোরা হয়েছিল তখন এখানে মৃত মানুষের অনেক হাড় পাওয়া গেছে।

আরেক প্রত্যক্ষদর্শী রহম আলী বেপারী বলেন, খাতেমা ও তার দাদীসহ ৭ জনের কবর ছিল। শ্রমিকরা যখন মাটি খননের কাজ করছিল তখন কবর থেকে সেই লাশের কংকাল পাওয়া গেছে।

এ বিষয়ে জমি ওয়াকফ দাতার ছেলে ইংলেন্ড প্রবাসী মো. আলমগীর হোসেন বলেন, আমার বাবা ও জেঠা মসজিদে নামে জমি দেয়। মসজিদ ঘরটি ছোট ও টিনের ঘর ছিল। কিন্তু যখন শুনতে পেলাম মসজিদটি দালান ও বড় করা হবে তখন মসজিদ কমিটির সভাপতি ও অন্যান্য সদস্যদের কবরের বিষয়টি অবহিত করেছিলাম। কবরের জায়গা টুকু খালি রেখে কাজ করবে বলে আমাকে কথা দিয়েছে। কিন্তু তারা ওয়াদা ভঙ্গ করে সেই জায়গাতে বাথরুমের হাউজ নির্মান করেছে, যা ধর্মীয় বিধানমতে নিকৃষ্টতম কাজ।আমি প্রবাস থেকে দেশে এসে দেখি এ অবস্থা।
আমি এ জগন্যতম ঘটনার প্রতিকার চাই।

এ বিষয়ে মসজিদ কমিটির সভাপতি বজলুর রহমান (হক) সাহেবকে ফোন করলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। তবে মসজিদের কোষাধ্যক্ষ বলেন, ওয়াকফ জায়গাতেই মসজিদের নির্মান করা হয়েছে। এখানে কবর ছিল কিনা আমাদের জানা নেই।

 21 সর্বমোট পড়েছেন,  1 আজ পড়েছেন

শেয়ার করুন