রিপোর্ট 542

গ্রাম্য সালিসে স্পর্শকাতর ঘটনার বিচার না করতে এসপির নির্দেশ

জেলা প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ :: ০৬ মার্চ ২০২২, ০৭:২৯ পিএম

গ্রাম্য সালিসে নারী নির্যাতন ও ধর্ষণের মতো অপরাধের বিচার না করতে নির্দেশ দিয়েছেন ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার (এসপি) মোহা. আহমার উজ্জামান।

তিনি বলেন, গ্রাম্য সালিসের মাধ্যমে অনেক স্থানীয় বিরোধ মিমাংসা হয়। কিন্তু ধর্ষণসহ স্পর্শকাতর ঘটনার বিচার ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্য এবং স্থানীয় মাতব্বররা করতে পারবেন না। এজন্য থানা পুলিশের সহায়তা নিতে হবে। অন্যথায় তা অপরাধ বলে গণ্য হবে।

রোববার (৬ মার্চ) বিকেলে নগরীর খাগডহরের বাহাদুরপুর আবাসন মোড়ে কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশের বিট পুলিশিং সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পুলিশ সুপার এসব কথা বলেন।

মাদক নির্মূলে পুলিশ বাহিনী দিন-রাত কাজ করছে জানিয়ে মোহা. আহমার উজ্জামান বলেন, মাদকের বিষয়ে কোনো ছাড় দেয় না পুলিশ। পুলিশের কোনো সদস্যও যদি অপকর্ম করে, এমনকি মাদকের সঙ্গে জড়িত থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পুলিশ সুপার আরো বলেন, পুলিশি সেবা কার্যক্রমকে প্রান্তিক পর্যায়ে জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতেই বিট পুলিশিং। জনগণের সমস্যা এবং অভিযোগ সরাসরি বিটে কর্মরত অফিসারকে জানাতে পারে একজন ভুক্তভোগী। তাই থানায় না গিয়েও অনেকে জিডি বা অভিযোগ দিতে পারছেন কোনো ধরনের হয়রানি ছাড়াই।

কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ কামাল আকন্দের সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খন্দকার ফজলে রাব্বি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশরাফ হোসাইন।

Hakim Mizanur Rahman New ad

স্বাগত বক্তব্যে শাহ কামাল আকন্দ বলেন, জনসাধারণের সঙ্গে পুলিশের দূরত্ব কমানো এবং পুলিশ ভীতি কমাতে আমরা কাজ করছি। কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা ও জিডি করতে কোনো টাকা-পয়সা লাগে না। এছাড়া মামলা করতে এখন আর কাউকে থানায় যেতে হয় না। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছে।

পুলিশ পরিদর্শক ওয়াজেদ আলীর সঞ্চালনায় সমাবেশে স্থানীয় কাউন্সিলর আবুল বাশার, ইউপি চেয়ারম্যান এমদাদুল হক, শামছুল হক কালু, একরামুল হক, আলীগ নেতা কামরুল হক,শফিকুল ইসলাম তপন, বিট অফিসার আনোয়ার হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

 107 সর্বমোট পড়েছেন,  1 আজ পড়েছেন

শেয়ার করুন