রিপোর্ট 534

ফরিদগঞ্জ পৌর বাজার ও বাসষ্ট্যান্ড গুপচি টেন্ডারে ইজারার অভিযোগ

ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি : :
চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ পৌরসভার বাজার ও বাসষ্ট্যান্ড গুপচি টেন্ডারে ইজারার অভিযোগ উঠেছে। এতে সরকার মানসম্মত রাজস্ব পাওয়া থেকেও বঞ্চিত হয়েছে।

ইজারা বিজ্ঞপ্তি সম্পূর্ণ গোপনীয়তা রেখে ও গুপচি করে বিএনপির নেতার নামে আনার ফলে ব্যাপক আলোচনা ও সমালোচনার ঝড় বইছে। পৌর পরিষদের কোন সভায়ই এ বিষয়ে কোন ধরণের আলোচনা হয়নি বলে একাধিক কাউন্সেলর নিশ্চিত করেছেন। পৌরসভার নোটিশ বোর্ডে দায় এড়ানোর জন্য টেন্ডার বিজ্ঞপ্তির সকল কাজ সম্পন্ন করার পর নোটিশটি সাঁটানো হয়েছে। বিগত ৩ বছরের সর্বোচ্চ ইজাড়া গড় মূল্য ( সরকারী মূল্য) ফরিদগঞ্জ বাজার ২৬ লাখ ও বাসষ্ট্যান্ড ৩৬ লাখ টাকা দেখানো হয়েছে। তবে বর্তমান অর্থ বছরে কত টাকায় ইজারা দেওয়া হয়েছে তা জানা যায়নি।

ইজারা বিজ্ঞপ্তি গুপচি করায় পৌর সভার কাউন্সেলররা ক্ষোভ প্রকাশ করছে। তাছাড়া ক্ষমতাসীন দলের নেতৃত¦ স্থানীয় অনেকেই নিয়ম বর্হিভূত হওয়ার পতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।

সম্প্রতি নোটিশ বোর্ডে সাঁটানো নোটিশে দরপত্র খোঁলার তারিখ ১ম পর্যায় ২৩/০২/২০২২ইং, ২য় পর্যায় ০২/০৩/২০২২ইং ও ৩য় পর্যায় ০৯/০৩/২০২২ইং দেখানো হলেও কার্যত: সময়মত না টানানো ও পৌর পরিষদের মিটিংএ আলোচনা না করে সুবিধা ভাগাভাতিতে গুপচিতে টেন্ডার কাজ সম্পন্ন করায় ঠিকাদাররা অংশ নিতে পারেনি। এমনকি কোন পত্রিকায় কত তারিখে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ পেয়েছে তাও জানতে পারেনি কেউ।

এ বিষয়ে সাবেক মেয়র ও পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মাহফুজুল হক জানান, সরকারের নিয়মানুযায়ী টেন্ডার কাজ সম্পন্ন হওয়া উচিত।

তিনি আরোও জানান, আমার সময়কালে সাংবাদিক ও ঠিকাদার ও প্রশাসনের লোকজনকে উপস্থিত রেখে টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছি। এখন তা রক্ষা হচ্ছে না বলে অনেকেই জানান। এদিকে অনেক ঠিকাদার আমাকে ফোন দিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। তাছাড়া অনেকেই বলছে বর্তমান মেয়রের ছেলে ও মেয়ের ইশারায় চলছে পৌর পরিষদের কর্মকান্ড।

ইজাড়া বিষয়ে ১নং ওয়ার্ড কাউন্সেলর মো: আমিন মিজি ও ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সেলর সাজ্জাদ হোসেন টিটু জানান , আমরা পৌর পরিষদের সবগুলো মিটিংএ উপস্থিত থাকা সর্তেও কোন মিটিংএ কখনও বাজার ও বাসস্ট্যান্ড ইজাড়ার বিষয়ে কোন ধরণের আলোচনা করতে শুনিনি।

ইজারার বিষয়ে পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও ৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সেলর আ: মন্নান পরানের নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান, সকল নিয়ম কানুন রক্ষা করেই বাজার ও বাসষ্ট্যান্ড ইজারা সম্পন্ন করা হয়েছে। কোন পত্রিকায় কত তারিখে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে জানতে চাইলে বলতে চাননি তিনি।

Hakim Mizanur Rahman New ad

এ বিষয়ে পৌরসভার সচিব মো: খোরশেদ আলম জানান, আমি অসুস্থ হাসপাতালে ভর্তি আছি এ বিষয়ে এখন কিছু বলতে পারবোনা।

ইজাড়ার বিষয়ে পৌর সভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: আবুল খায়ের পাটওয়ারী বলেন, নিয়মতান্ত্রিকতা রক্ষা করেই বাজার ও বাসস্ট্যান্ড ইজারা দেওয়া হয়েছে। আমি অসুস্থ পরে কথা বলুন।

 150 সর্বমোট পড়েছেন,  1 আজ পড়েছেন

শেয়ার করুন